মেইন ম্যেনু

এবার আফ্রিদিকে উকিল নোটিশ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিশন শুরু করার আগেই নতুন এক ঝামেলায় পড়েছেন পাকিস্তান অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি।

ভারতীয় দর্শকদের মন জয় করতেই গণমাধ্যমের সামনে তাদের প্রশংসায় ভাসিয়েছিলেন তিনি। আর বিশ্বকাপের মূল লড়াইয়ে নামার আগে সেটাই কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে আফ্রিদির জন্য।

ভারতীয় গণমাধ্যমের সামনে আফ্রিদি বলেছিলেন, ভারতেই নাকি ক্রিকেটটাকে তিনি সবচেয়ে বেশি উপভোগ করেন। তাছাড়া তিনি এবং তার সতীর্থরা ভারতে যে সমর্থন পান তা নাকি নিজ দেশ পাকিস্তানেও পান না।

আফ্রিদির মতো একজন অভিজ্ঞ ও দায়িত্বশীল অধিনায়কের কাছ থেকে এমন মন্তব্য পাকিস্তান সমর্থকরা প্রত্যশা করেননি। এমন ‘কান্ডজ্ঞানহীন’ বক্তব্যের পর তার কড়া সমালোচনায় মেতেছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার জাভেদ মিয়াঁদাদ এবং মহসিন খানের মতো সেরা তারকারা।

অনেকে আবার দেশে ফেরার পর ‘দেখে নেওয়া’র হুমকিও দিয়েছেন। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে, বিতর্কিত এবং দেশীয় সমর্থকদের ছোট করায় আফ্রিদির নামে উকিল নোটিশ পাঠিয়েছেন লাহোরের এক অ্যাডভোকেট।

উকিল নোটিশ পাঠিয়ে অ্যাডভোকেট আজহার সিদ্দীক বলেন, ‘পাকিস্তানের চেয়ে বেশি ভারত প্রীতির জন্য আমি আফ্রিদি এবং বোর্ডের গভর্নিং বডির প্রধান নাজাম শেঠিকে উকিল নোটিশ পাঠিয়েছি। আমি পিসিবি চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খানকেও আফ্রিদির মন্তব্য তদন্তের কথা বলেছি। ভারতের প্রতি বেশি ভালোবাসা প্রকাশ করতে গিয়ে আফ্রিদি পুরো পাকিস্তান জাতিকে ছোট করেছে।’

ভারতের পতাকা বাসার ছাদে উড়িয়ে কয়েক দিন আগে জেলে গিয়েছিলেন পাকিস্তানের এক বিরাট কোহলি-ভক্ত। এবার ভারতের প্রশংসা করে আইনী জটিলতায় পড়লেন স্বয়ং পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি।

অনেক চড়াই-উতরাই পেরিয়ে বিভিন্ন জঙ্গি হামলার হুমকি উপেক্ষা করে ভারতে বিশ্বকাপ খেলতে গেছে পাকিস্তান। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতে বিশ্বকাপ মঞ্চে পাকিস্তান দারুণ কিছু করুক এমনটাই প্রত্যাশা পাকিস্তান সমর্থকদের। কিন্তু টুনামেন্ট শুরুর আগেই দলীয় অধিনায়কের এমন দায়িত্বহীন মন্তব্যে আহত হয়েছেন পাকিস্তানের ক্রিকেটপ্রেমিক জনতা।