মেইন ম্যেনু

এবার ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কচ্ছেদ কাতার ও জিবুতির

এবার ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করল কাতার ও জিবুতি । বুধবার দেশ দুটি তেহরান থেকে তাদের রাষ্ট্রদূতদের প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

গত সপ্তাহে তেহরানে দূতাবাসে হামলার ঘটনায় সৌদি আরবের প্রতি সংহতি প্রকাশ করে কাতার ও জিবুতি তাদের রাষ্ট্রদূতকে প্রত্যাহার এ ঘোষণা দিল।

এর আগে সৌদি দূতাবাসে হামলার ঘটনায় বাহরাইন, সুদান ও কুয়েত ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছিল।

গত শুক্রবার সৌদি আরবে শিয়া সম্প্রদায়ের শীর্ষস্থানীয় নেতা শেখ নিমর আল নিমরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। এ ঘটনায় ইরান তাৎক্ষনিকভাবে কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছিল। রোববার ভোরে তেহরানে সৌদি দূতাবাসে হামলা চালায় বিক্ষোভকারীরা । একপর্যায়ে ওই দূতাবাস ভবনে তারা আগুন ধরিয়ে দেয়।

এদিকে নিমরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের পর আন্তর্জাতিক সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে সৌদি আরবের পাশে দাঁড়িয়েছে জর্ডান ও তুরস্ক ।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান বলেন, সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে ৪৭ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর সৌদি আরবের ‘অভ্যন্তরীণ ব্যাপার।’

তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় এক ভাষণে এরদোগান বলেন, আল-কায়েদার সঙ্গে যোগসূত্রতার অভিযোগে যাদের ফাঁসি কার্যকর হয়েছে তাদের মধ্যে ৪৬ জন সুন্নি মুসলমান। শুধু একজন শিয়া নেতা ছিলেন। আর এই সিদ্ধান্ত আগেই নিয়েছিল সৌদি এবং তা বাস্তবায়ন করেছে। এটা তাদের সিদ্ধান্ত।

তথ্যসূত্র : আল-জাজিরা অনলাইন।