মেইন ম্যেনু

এবার দেশ অচলের হুমকি দিল ওলামা লীগ

সংবিধান থেকে রাষ্ট্রধর্ম ইসলামকে বাদ দেয়া হলে সারাদেশে বড় ধরনের আন্দোলন গড়ে তোলে দেশ অচল করে দেয়া হবে বলে সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগসহ সমমনা ১৩টি ইসলামি দল। এর আগে গতকাল একই দাবিতে দেশ অচলের হুমকি দেয় হেফাজতে ইসলাম।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এ হুঁশিয়ারি দেন আওয়ামী ওলামা লীগের সভাপতি আখতার হুসাইন বোখারী। রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বহাল রাখাসহ সাত দফা দাবিও জানান তিনি।

আখতার হুসাইন বলেন, ‘বাংলাদেশ বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম রাষ্ট্র। এ দেশের ৯০ শতাংশ জনগোষ্ঠী মুসলমান। সংখ্যাগরিষ্ট মুসলমানের ধর্ম হিসাবে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম হবে সেটা নতুন করে বলার অপেক্ষাই রাখে না। কারণ পৃথিবীর ৬০টিরও বেশি দেশে সংখ্যাগরিষ্টদের ধর্মকে রাষ্ট্রধর্ম করা হয়েছে। সংবিধানে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বহাল না রাখা হলে দেশের বিমান, রেলপথ, সড়কপথ, অফিস-আদালত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অচল করে দেয়া হবে।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সরকার জাতীয় সংসদে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের প্রস্তাব পেশ করে আইন পাস করেছে। কিন্তু ১৯৭০, ২০০৮ ও ২০১৪ সালে আওয়ামী সরকারের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল পবিত্র কোরআন শরীফ ও সুন্নাহ বিরোধী আইন সংসদে পাস করা হবে না। কিন্তু সেসব প্রতিশ্রুতি সরকার এখনো বাস্তবায়ন করেনি।’

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সংখ্যাগরিষ্ঠতার দিক দিয়ে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে এ দেশের মুসলমানদের অংশগ্রহণ বেশি ছিল বলেই আজ বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। কোনো অসাম্প্রদায়িক চিন্তা-চেতনা নিয়ে এদেশ স্বাধীন হয়নি।

মাববন্ধনে আরো বক্তব্য দেন সংগঠানের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মো. আবুল হাসান শেখ, সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদের সভাপতি মাওলানা মো. আব্দুস সাত্তার, বঙ্গবন্ধু ওলামা ফাউন্ডেশনের সভাপতি মুফতি মাসুম বিল্লাহ প্রমুখ।