মেইন ম্যেনু

এবার নার্সদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি

ব্যাচভিত্তিক নিয়োগের দাবিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বাসভবন ঘেরাওকালে পুলিশের লাঠিচার্জে আহত আন্দোলনকারী নার্সদের মধ্য থেকে দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরেরও প্রস্তুতি চলছে।

বুধবার রাত সোয়া ১০ টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার পর ধানমন্ডি থানার ওসি নূরে আজম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘এখনো মামলা হয়নি। মামলার প্রস্তুতি চলছে। ঘটনাস্থল থেকে দুজনকে আটক করা হয়েছে।’ তবে তাৎক্ষণিকভাবে তিনি আটকদের নাম জানাতে পারেননি।

এর আগে, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে আন্দোলনরত নার্সদের ওপর লাঠিচার্জ করে ধানমন্ডি থানা পুলিশ।

সংগঠনের সভাপতি রিনা আক্তার জানান, বিকেলে তারা স্বাস্থ্যমন্ত্রী বাসভবন অভিমুখে পদযাত্রা করেন। এ সময় ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে পুলিশের প্রথম ব্যারিকেডের মুখোমুখি হতে হয়। পরে ওই ব্যারিকেড ভেঙে এগিয়ে যাওয়ার পথে পুলিশ নার্সদের ওপর লাঠিচার্জ করে। এতে অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন। যার মধ্যে শিখা, সালমা ও রহিমের অবস্থা গুরুতর।

আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান রিনা আক্তার।

এদিকে ধানমন্ডি থানার ওসি নূরে আজম দাবি করেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বাড়ি ঘেরাও করতে এসে আন্দোলনরত নার্সরা পুলিশের ওপর চড়াও হয়। পরে হাল্কা লাঠিচার্জ করে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

উল্লেখ্য, ব্যাচভিত্তিক নিয়োগের দাবিতে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি পালনের পর স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দেয়া আশ্বাসের কোনো বাস্তব প্রতিফলন দেখতে না পেয়ে তার বাসভবন ঘেরাওয়ে যায় বাংলাদেশ ডিপ্লোমা বেকার নার্সেস অ্যাসোসিয়েশন ও বেসিক গ্র্যাজুয়েট নার্সেস সোসাইটি।