মেইন ম্যেনু

এবার নিবার্চন কর্মকর্তাকে পেটালেন এমপি

চট্টগ্রাম : ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে পছন্দ মতো প্রিজাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসার ও এজেন্ট নিয়োগ না দেয়ায় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলামকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছেন বাঁশখালীর এমপি মোস্তাফিজুর রহমান ও তার অনুসারীরা।

বুধবার (১ জুন) বেলা ১২টার দিকে উপজেলা নির্বাচন অফিসে এ ঘটনা ঘটে।

চট্টগ্রামের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আব্দুল বাতেন বলেন, ‘বাঁশখালীর এমপি মোস্তাফিজুর রহমান ও তার অনুসারীরা সকাল থেকে উপজেলা নির্বাচনের ভোটকেন্দ্রে নিজেদের পছন্দের প্রিজাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসার ও এজেন্ট নিয়োগে চাপ দিয়ে আসছিল। কিন্তু উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম তাদের সে অন্যায় আবদার মেনে না নেয়ায় এমপি মোস্তাফিজুর রহমান নিজে ও তার অনুসারীরা তাকে মারধর করে।’

মারধরের শিকার নির্বাচন কর্মকর্তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ঢাকার ‍নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করা হয়েছে বলে জানান আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আব্দুল বাতেন।

এ বিষয়ে জানান জন্য এমপি মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ ষষ্ঠ ধাপে আগামী ৪ জুন চট্টগ্রামের ছয় উপজেলার ৫৫টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।