মেইন ম্যেনু

এবার মা ও ছেলে একসাথে ক্রিকেট ম্যাচ খেলে রেকর্ড গড়লেন!

ছেলের মাঝে ক্রিকেটের খুব ভালো সম্ভাবনা। ছেলের ক্রিকেটের উন্নতির জন্য মাও বছর দুয়েক আগে ক্রিকেট খেলা ধরলেন। তবে কে জানতো একদিন এমন বিরল এক রেকর্ডের খাতায় ঢুকে যাবেন তারা! ল্যাঙ্কাশায়ারের লেঘ ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে একই ম্যাচে খেলে মাও ছেলে ভিন্ন রকমের রেকর্ড গড়লেন! ইংল্যান্ডে মা ও ছেলের একই সাথে একই দলের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্রিকেট খেলার প্রথম নজির গড়লেন তারা।

হেলেন স্মিথের বয়স ৪৭। তার ছেলে ১৪ বছরের লিউক। অন্যান্য দিনের মতো এদিনও ছেলেকে ক্রিকেট মাঠে নিয়ে এসেছিলেন। খেলা শুরুর আগে দেখা গেল লেঘ ক্লাবের একজন খেলোয়াড় কম। একাদশ গড়া যাচ্ছে না। কি করা যায়! লিউক ও তার দলের ক্যাপ্টেন মিলে হেলেনকে মাঠে নেমে পড়ার প্রস্তাব দিলেন।

মাঠে নেমে উইকেটকিপিংও করলেন হেলেন। দর্শকরাও সাদরে নিয়েছে তার পারফরম্যান্স। তাদের ক্লাব ড্র করতে পেরেছে। ক্লাবটির নারী দলে খেলে থাকেন হেলেন। ম্যাচের পর দারুণ উচ্ছ্বসিত হেলেন বললেন, “আগে কখনো শুনিনি যে কোনো মা ও ছেলে একসাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ কোনো ম্যাচ খেলেছে। মনে হয় এর আগে কখনো এমনটা ঘটেনি।”

২০১৫ সালে অস্ট্রেলিয়ায় ঘটেছিল একটি ঘটনা। এক পরিবারের তিন সদস্য একই সাথে একটি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচে খেলেছিলেন। তারা ছিলেন বাবা, মা ও ছেলে। সু ও রে বাবা-মা। মিচেল তাদের ছেলে। ক্রেইগবার্ন ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে তারা একসাথে একটি ম্যাচ খেলেছিলেন।