মেইন ম্যেনু

এবার সানি লিওনের সাক্ষাৎকার নিয়ে তোলপাড়

বলিউডে ক্যারিয়ার শুরুর পর থেকেই ভারতে বেশ জনপ্রিয় সানি লিওন। এমনকি গুগল ইন্ডিয়া সার্চেও শীর্ষে তিনি। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে হাজির হয়েছিলেন সানি। তবে সাক্ষাৎকারে সানিকে প্রশ্ন করে রীতিমতো সবার সমালোচনায় মুখে সেই সাংবাদিক। ইন্টারনেটজুড়ে এটি নিয়ে শুরু হয়েছে তোলপাড়। বলিউড তারকারাও রয়েছেন এ তালিকায়।

মাস্তিজাদে সিনেমার প্রচারণার অংশ হিসেবে সিএনএন-আইবিএন সাংবাদিক ভুপেন্দ্র চৌবের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে হাজির হয়েছিলেন সানি লিওন। প্রথমবারের মতো কোনো সাংবাদিককে এককভাবে সাক্ষাৎ দিলেন তিনি। কিন্তু সাক্ষাৎকারের বিষয় মোটেও সিনেমার মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল না। বরং বারবার সাংবাদিক ভুপেন্দ্র সানির অতীত নিয়েই প্রশ্ন করছিলেন। তবে, প্রশ্নগুলো খুব ভালোভাবেই সামলেছেন এ অভিনেত্রী। আর সানির অতীত নিয়ে টানা হ্যাঁচড়া করায় ক্ষুব্ধ বলিপাড়া।

সাংবাদিক ভুপেন্দ্র চৌবের প্রথম প্রশ্ন ছিল, আপনি কি আপনার অতীত নিয়ে গর্বিত? পর্নো তারকা হিসেবে আপনার অতীত কী আপনাকে তাড়া করে?

প্রশ্ন শুনে কোনো রাখঢাক না করে সানি উত্তরে বলেন, ‘আপনিই একমাত্র ব্যক্তি যিনি এসব ভাবছেন। সংবাদমাধ্যমই বারবার দাবি করে, আমার প্রতিবন্ধকতা আমার অতীত। কিন্তু আমি কখনো সেটি বলিনি। আমি তা মনেও করি না। আমি বিশ্বাস করি, আমি একদিন বড় কোনো তারকার সঙ্গে কাজ করব। যদিও এখনো তেমন কাউকে পাইনি। তার জন্য আমার কোনো দুঃখ নেই। আমার জীবন নিয়ে আমি খুশি। ’

কিন্তু সানি যতরাই বলেছেন নিজের অতীত নিয়ে তার দুঃখ নেই, ততবার সাংবাদিক সানির অতীত নিয়েই প্রশ্নতে সীমাবদ্ধ ছিলেন।

পরবর্তীতে তিনি সানিকে আবার প্রশ্ন করেন, ‘যদি ঘড়ির কাঁটা পিছিয়ে দেওয়া যায়, তাহলে কী আপনি অন্যভাবে ক্যারিয়ার শুরু করতে চাইবেন? আপনি কি মনে করেন, কেউ জীবনে পর্নোতারকা হওয়ার স্বপ্ন দেখেন?’

উত্তরে সানি বলেন, ‘কেউ দেখে না।’

সাক্ষাৎকারের পর রীতিমতো সমালোচনার ঝড় শুরু হয় ইন্টারনেটে। মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারেও এটি নিয়ে মন্তব্য করেছেন অনেকেই। বলিউড তারকারাও জানিয়েছেন তাদের বক্তব্য। ঋষি কাপুর, আনুশকা শর্মা, আলিয়া ভাট নিজ নিজ অ্যাকাউন্টে তাদের মতামত লিখেছেন। পাশাপাশি তারা সানির আত্মবিশ্বাসের প্রশংসায় ছিলেন পঞ্চমুখ।

ঋষি কাপুর টুইট করেছেন, ‘খুব খারাপ ও তিক্ত সাক্ষাৎকার। প্রত্যেকটি প্রশ্নই খুব স্পোর্টিংলি নিয়েছেন সানি। অসাধারণ আত্মবিশ্বাস। ’

আনুশকা শর্মা লিখেছেন, ‘এই সাক্ষাৎকারেই বোঝা গেল, কিছু সাংবাদিকের বুদ্ধিমত্তা অতি নিম্ন মানের। প্রাথমিক সম্মানটুকুও মানুষকে দিতে জানে না।’

অভিনেত্রী দিয়া মির্জা লিখেছেন, ‘একই প্রশ্ন ২০ বার করা হয়েছে। আসলে সানির অকপট ও সাহসী উত্তর কিছুতেই মেনে নিতে পারছিলেন না সাংবাদিক।’

আলিয়া ভাট লিখেছেন, ‘এটা কোনো সাক্ষাৎকারই নয়। নিজের মত পোষণ করা হচ্ছিল বারবার। ফালতু সাক্ষাৎকার। ’

এদিকে তার পাশে দাঁড়ানোর জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সানি লিওন। অন্যদিকে সানির স্বামী ড্যানিয়েল এ ঘটনার জন্য সাংবাদিককে সম্পূর্ণ দায়ী করেছেন।

বলিউডে সানি লিওনের অভিষেক হয় ইরোটিক থ্রিলার জিসম টু সিনেমার মাধ্যমে। এরপর জ্যাকপট (২০১৩),রাগিনি এমএমএস টু (২০১৪) এবং এক পেহেলি লীলা (২০১৫) সিনেমায় অভিনয় করেন এ অভিনেত্রী।

২০১৫ সালেও বেশ কয়েকটি সিনেমায় কাজ করেছেন সানি লিওন। তার মধ্যে মিলাপ জাভেরির অ্যাডাল্ট-কমেডি ঘরানার মাস্তিজাদে মুক্তির অপেক্ষায়। এছাড়া পরিচালক ডোলাকিয়ার টিনা অ্যান্ড লোলো সিনেমার কাজও শেষ করেছেন। এখন ব্যস্ত আছেন রাজিব চৌধুরি পরিচালিত বেঈমান লাভ সিনেমার শুটিং নিয়ে।