মেইন ম্যেনু

এমবিএ পাস করা ৯৩ শতাংশই বেকার

মাত্র ৭ শতাংশ এমবিএ পাশ করা শিক্ষার্থীই চাকরির জন্য উপযুক্ত। আর বাকিরা আছে শুধু একটি সার্টিফিকেট নিয়ে। এমনই ভয়ঙ্কর তথ্য উঠে এসেছে ভারতের শিক্ষা গবেষণা প্রতিষ্ঠান অ্যাসোচ্যাম‘র সমীক্ষায়। তাতে বলা হয়েছে, দেশটির ব্যবসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আইআইএম’র মতো সেরা বিজনেস স্কুলগুলো বাদ দিলে বাকিগুলো থেকে উপযুক্ত কোনো শিক্ষার্থীই তৈরি হচ্ছে না।

ভারতে সাড়ে পাঁচ হাজারের বেশি বিজনেস স্কুল ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। প্রতি বছরই সেই সব প্রতিষ্ঠান থেকে হাজার হাজার শিক্ষার্থী পাশ করে বের হচ্ছে। ওই সব প্রতিষ্ঠান থেকে পাশ করা ছেলেমেয়েরা সে ভাবে কাজ জোটাতে পারছে না। আর পারলেও মাত্র ৮-১০ হাজার টাকার চাকরি।

উচ্চমাধ্যমিক পাশ করার পর থেকেই অনেক ছেলেমেয়ে উচ্চ স্বপ্ন নিয়ে লাখ লাখ টাকা খরচ করে বেসরকারি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্কুলগুলিতে ভর্তি হচ্ছে। কিন্তু ফল শূন্য।

কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, অন্যসব প্রতিষ্ঠানে আইআইএম’র মতো অবকাঠামো নেই। শিক্ষার ধরনও অনেক নিম্ন মানের। ফলে ৭০-৮০ শতাংশ নিয়ে পাশ করেও স্বপ্নভঙ্গ হচ্ছে এই সব ছেলেমেয়েদের।

গত দুই বছরে দিল্লি, মুম্বাই, কলকাতা বেঙ্গালুর, আহমদাবাদ, লখনৌ, হায়দরাবাদ ও দেরাদুনে প্রায় ২২০টি বিজনেস স্কুল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সমীক্ষায় আরো দেখা যায়, ২০১১-১২ সেশনের তুলনায় ২০১৫-১৬ সেশনে প্রতিষ্ঠানগুলোর আসনের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ করা হয়েছে। একজন সাধারণ মাপের শিক্ষার্থী তিন থেকে পাঁচ লাখ টাকা খরচ করে এই সব প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হচ্ছে। অথচ পাশ করার পর চাকরি জুটছে মাত্র ৮-১০ হাজারের।