মেইন ম্যেনু

এসএসসি পাস করেই তিনি ডাক্তার !

তিনি মাত্র এসএসসি পাস করেছেন। কিন্তু তার ভিজিটিং কার্ড আর প্রেসক্রিপশন প্যাডে লেখা তিনি মা ও শিশু রোগে বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ডাক্তার। শুদ্ধ করে দুই-এক লাইন বাংলাও লিখতে পারেন না। কিন্তু তিনি নিয়মিত রোগী দেখে ফি নিয়ে প্রেসক্রিপশন দেন।

এমনই একজন ভুয়া প্রতারক ডাক্তারের সন্ধান পেয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমীন পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার দুপুরে চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানার বাস্তুহারা সৎসঙ্গ সরণি এলাকা থেকে আর কে নাথ (৩২) নামের এই ভুয়া ডাক্তারকে আটক করা হয়।

ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমীন জানান, আর কে নাথ মাত্র এসএসসি পাস করেই নিজের নামের সঙ্গে ডাক্তার পদবী লাগিয়ে রীতিমত চেম্বার খুলে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছিলেন।

বুধবার তার চেম্বারে অভিযানকালে এই ভুয়া চিকিৎসক জানান, তার নাম রাসেল কান্তি নাথ, বাবা সুনীল চন্দ্র নাথ। প্রেসক্রিপশানে তিনি লেখেন ডা. আর কে নাথ। তিনি এসএসসি পাস করেছেন। আর্থিক কারণে আর পড়াশোনা করতে পারেননি। কক্সবাজারের কলাতলী এলাকায় কোনো এক নাম না জানা প্রতিষ্ঠান থেকে তিনি এলএলএফ প্রশিক্ষণ নিয়েছেন বলে জানান।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাছে নিজের দোষ স্বীকার করে এই ভুয়া ডাক্তার বলেন, ভিজিটিং কার্ডে লেখা মা ও শিশু রোগে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। এসব মিথ্যে লিখেছি, আমি আসলে ভুয়া। আমাকে মাফ করে দেন, আমি গরিব মানুষ।

পরে ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমীন এই ভুয়া ডাক্তারকে দোষী সাব্যস্ত করে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন এবং ভবিষ্যতে এই ধরনের প্রতারণা আর করবে না মর্মে মুচলেকা আদায় করে ছেড়ে দেন।