মেইন ম্যেনু

ঐতিহ্যবাহী মেমনগর হাইস্কুলের শতবর্ষ পুর্তি উৎসব আজ

শামীম রেজা, জেলা সংবাদদাতা, চুয়াডাঙ্গা: দেশের ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠ,যেখান থেকে অসংখ্য গুনী সন্তান জন্ম নিয়ে দেশ-বিদেশে অনন্য প্রতিভার স্বাক্ষর রেখে চলেছে নিজ নিজ কর্মপরিবেশে।সেই আপন মহিমায় ভাস্বর বিদ্যাপিঠ দর্শনার মেমনগর বিডি হাইস্কুল। বৃটিশ আমলে বিশিষ্ঠ শিক্ষানুরাগী বিপ্রদাস বাবু’র একান্ত ব্যাক্তিগত প্রচেষ্টায় ১৯১৬ সালে প্রতিষ্ঠা লাভের পর হতে ২০১৬ সালে এসে শত বছর পার করলো স্কুলটি। দূর্লভ এই সময়টাকে ইতিহাসে পরিনত করতে প্রাক্তন, বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের কাছে স্মরনীয় এবং দীর্ঘদিন মনে রাখার মত করে গোটা দর্শনা জুড়ে উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।

আর এই বিশাল উৎসবকে সূচারুভাবে ও নিরাপত্বার মধ্য দিয়ে সম্পন্ন করতে স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র এবং এলাকার দু’জন সৃষ্ঠিশীল মানুষ হাজী আলী আজগার টগর এমপি ও ওয়েভ ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক মহসিন আলীর নেতৃত্বে সকল শ্রেণীপেশার ও দল-মতের প্রতিনিধিত্বশীল মানুষের সমন্বয়ে গঠন করা হয়েছে “শতবর্ষ পূর্তি উৎসব উৎযাপন পরিষদ”। পাশা পাশি দর্শনা পৌর মেয়র মতিয়ার রহমানের সার্বিক তদারকি, বিএনপি নেতা মাহমুদ হাসান খান বাবু ও মোখলেছুর রহমান তরফদার টিপু, ওয়েভ ফাউন্ডেশন,অনির্বান থিয়েটার,দর্শনা নাগরীক পরিষদ, রামাযুস, কেরু চিনিকল, ঢাকাস্থ দর্শনা পরিবার সহ দর্শনার সকল রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ব্যাবসায়ী, পেশাজীবি সংগঠন এবং মুক্তিযোদ্ধা সহ সর্বস্তরের দর্শনা বাসীর সাথে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন এবং পুলিশ বিভাগের সার্বিক সহযোগীতায় এ উৎসব পেয়েছে নতুন মাত্রা।

প্রায় বছরকাল ব্যাপী অনুষ্ঠিত মেমনগর বিডি হাইস্কুলের শতবর্ষ পুর্তি উৎসবের ৩ দিনের চুড়ান্ত পর্যায়ের তিনদিনব্যাপি উৎসবের সূচনা হবে বৃহস্পতিবার বিকেল চারটায়। উৎসব উপকরণ বিতরণ ও দর্শনার বিভিন্ন বিদ্যালয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলবে রাত ৯টা পর্যন্ত। রাত ৯টা থেকে ১২টা পর্যন্ত বড় পর্দায় সিনেমা প্রদর্শন হবে। রাত ১২টায় দর্শনার কেরু এন্ড কোম্পানি চিনিকলে সাইরেন বাজানো হবে। সাথে সাথেই দর্শনার নির্দিষ্ট কিছু স্থানে আতশবাজি দিয়ে আলোকিত করা হবে পুরো দর্শনা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে শুক্রবার সকাল ৯টায়। উৎসব উদ্বোধন করবেন পিকেএসএফ এর চেয়ারম্যান ও উৎসবের প্রধান অতিথি ড. কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ। চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস ও পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান থাকবেন বিশেষ অতিথি। শোভাযাত্রা, বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের স্মৃতিচারণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে সারাদিনব্যাপি। সন্ধ্যায় ভারতের জীবনমুখি শিল্পী নচিকেতা চক্রবর্তী সঙ্গীত পরিবেশন করবেন।

শনিবার ‘দর্শনার বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থার বর্তমান অবস্থান ও উত্তরণ’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান হবে সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত। এরপর গল্প, ছড়া ও চিঠি পাঠ এবং আড্ডা ছাড়াও থাকবে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা ও জাতীয় পর্যায়ে খ্যাতিমান শিল্পীদের পরিবেশনায় হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

দর্শনার মেমনগর বিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তি উৎসব পরিষদের সভাপতি চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজগার টগর জানান, সব প্রস্তুতি শেষ। উৎসব শুরুর আগেই শুরু হয়ে গেছে উৎসব। দর্শনার যেসব মানুষ এখন দেশের বিভিন্ন প্রান্তে তারা ছুটে আসছেন দর্শনায়।

Chuadanga  Memnagor High School Hundread Year Aniversary Program  16-03-16 (1)

উৎযাপন পরিষদ ও স্কুল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে আশা করা হচ্ছে এই উৎসবটি দেশে ও বিদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা মেমনগর বিডি হাইস্কুলের সকল প্রাক্তন ও বর্তমান ছাত্র-ছাত্রী এবং শিক্ষক,অভিভাবক সর্বোপরি দর্শনাবাসীর মিলন মেলায় পরিনত হবে।

যেখানে সকল আবেগ,উচ্ছাস,স্মৃতি,অনুভুতি,মান-অভিমান সেই সাথে দীর্ঘদিনের বিরহ,সহপাঠীদের কাছ থেকে নিরুদ্দেশ জীবন,সেই ছোটবেলার কথা, স্কুলজীবনের টুকরো কিছু স্মৃতি মিলে-মিশে সকলের মাঝে একাকার হয়ে যাবে। মাষ্টার মশায়ের হাতে মার খাওয়া,ক্লাস ফাকি দিয়ে আম কুড়াতে যাওয়া,দুরন্ত রোদ কিংবা বৃষ্টির মাঝে স্কুল মাঠে ফুটবল খেলা, বছরের শুরুতে নতুন ক্লাসে ওঠার আনন্দ,নতুন বইয়ের গন্ধ,স্কুল আঙিনার বটগাছের ছায়ায় বসে গল্প অথবা স্কুলের সামনে দিয়ে অবিরাম বয়ে চলা ছোট্র অথচ শ্রোতস্বিনী মাথাভাঙ্গা নদীর পাড়ে ঘুরে বেড়ানো সেই সাথে কখনো আবার নৌকায় চড়া এ সব কিছুর মিষ্টি স্মৃতি ও সুখানুভুতির ¯িœগ্ধ পরশ ছুয়ে যাবে উৎসবের অভ্যাগতদের অন্তর মন। উৎসবের মধ্যেই শতবর্ষ পূর্তি উৎসব উৎযাপন পরিষদ ঐতিহ্যবাহী ও প্রাচীন এই বিদ্যাপিঠের যুগোপযোগী উন্নয়নে অত্যাধুনিক একটি কম্পিউটার ল্যাব প্রতিষ্ঠা সহ বেশ কিছু উদ্যোগ গ্রহন করেছেন।