মেইন ম্যেনু

‘ওই ব্যাটা চুপ’

কে বললেন, ওই ব্যাটা চুপ। তিনি সামনে আসেন। সাহস থাকলে সামনে আসেন। যিনি এ কথা বলেছেন আই ওয়ান্ট টু সি হিম। এটি আদালতের এখতিয়ারবহির্ভূত কথা। এটি আদালত অবমাননার শামিল। যিনি এ কথা বলেছেন, তিনি আইনজীবীর ব্যানারে পোশাকধারী সন্ত্রাসী।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে বকশীবাজারে অবস্থিত কারা প্যারেড গ্রাউন্ডের মাঠে বিশেষ জজ আদালতে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার শুনানি চলছিল। এ সময় বাদী হারুন অর রশীদকে আসামিপক্ষের আইনজীবীর জেরা করা শেষে কোনো এক আইনজীবীর ‘ওই ব্যাটা চুপ’ উক্তির পর বিচারক এসব কথা বলেন।

বিচারক আবু আহমেদ জমাদার বলেন, ‘যিনি এ বাক্য বলেছেন, তিনি পোশাকধারী একজন সন্ত্রাসী। এই সন্ত্রাসীদের বিচার একান্ত প্রয়োজন। সাহস থাকলে তিনি সামনে আসেন। এখানে এই সব লোকজন আসতে পারবেন না। এ ধরনের বাক্য কোনোভাবেই বরদাশত করা হবে না। এসব লোকদের এখন থেকে চিহ্নিত করা হবে।’

এ বিষয়ে ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন আদালতে বলেন, ‘খালেদা জিয়ার আইনজীবী যারা এখানে এসেছেন, আমার মনে হয়, তাদের মধ্য থেকে এমন বাক্য কেউ উচ্চারণ করেননি। অন্য কেউ করে থাকতে পারেন।’ এ সময় বিচারক বলেন, ‘আপনাদের মধ্য থেকেই কেউ একজন করেছে। আমি আপনাদের দিক থেকেই ওই বাক্য শুনতে পেয়েছি।’

জবাবে বিএনপিপন্থী সব আইনজীবীর পক্ষ থেকে আদালতে ক্ষমা প্রার্থনা করেন মাহবুব উদ্দিন খোকন।