মেইন ম্যেনু

ওষুধ ব্যবসার কথা বলে বাসা ভাড়া নিয়েছিল জঙ্গিরা

নারায়ণগঞ্জ শহরের পাইকপাড়ায় যে বাসায় অভিযানে গুলশান হামলার মাস্টারমাইন্ড তামিম চৌধুরীসহ তিন জঙ্গি নিহত হয়েছেন সেই বাসাটি ওষুধ ব্যবসার কথা বলে ভাড়া নেওয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক।

শনিবার সকালে পুলিশে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের চালানো অভিযানে তিন জঙ্গি নিহত হওয়ার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের এ কথা জানান আইজিপি।

পাইকপাড়ার বড় কবরস্থান এলাকার নুরুদ্দিনের বাড়ির তৃতীয় তলায় জঙ্গিরা অবস্থান করছেন- এমন খবর পেয়ে ভোরের দিকে বাড়িটি ঘিরে ফেলে পুলিশ। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সেখানে অভিযান শুরু করে পুলিশ। অভিযানের নাম দেওয়া হয় ‘অপারেশন হিট স্টং ২৭’। অভিযান শুরুর পর ১০টার দিকে সেখানে ব্যাপক গোলাগুলি শুরু হয়।

এরপর পুলিশ জানায় এতে তিন জঙ্গি নিহত হয়েছেন। যাদের মধ্যে একজন গুলশান হামলার মাস্টারমাইন্ড তামিম চৌধুরী। গুলশান হামলার মাস্টারমাইন্ড বলে আগেই তার কথা জানিয়েছিল পুলিশ। এছাড়া ওই ঘটনার হোতা বলে সেনাবাহিনীর চাকুরিচু্যত মেজর জিয়ার কথা্ও বলেছে পুলিশ। তবে জিয়ার খোঁজ পাওয়ার কোনো কথা এখনো পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়নি।

আইজিপি বলেন, গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জের পাইকপাড়া বড় কবরস্থান এলাকায় ঢাকা থেকে আসা আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা শনিবার ভোরে বাড়িটি ঘেরাও করে ফেলে। এসময় আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা মাইকিং করে জঙ্গিদের আত্মসমর্পণ করার আহ্বান জানায়। কিন্তু জঙ্গিরা আত্মসমর্পণ না করে বেশ কয়েকটি গ্রেনেড নিক্ষেপ করে। পরে সকাল সাড়ে ৯টায় আইনশৃংখলা বাহিনীর অভিযান শুরু করে। এতে ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। প্রায় এক ঘন্টা অভিযানে জঙ্গি সদস্য তামিম চৌধুরীসহ তিনজন জঙ্গি সদস্য মারা যায়।

এদিকে দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন স্বরাষ্টমন্ত্রী।