মেইন ম্যেনু

ওয়াই ফাই ব্যবহারে ফুরোবে না চার্জ

ওয়াই ফাই জোনে গেছেন। দ্রুত প্রয়োজনীয় ফাইল ডাউনলোড করতে পারলেই বাঁচেন। কিন্তু বাধ সাধে চার্জ! কারণ নেট চালাতে গেলেই ফোনের চার্জ শেষ। তবে এখন থেকে ওয়াই ফাই ব্যবহারে আর ফুরোবে না মোবাইলের চার্জ। একদল গবেষক নতুন একটি প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছেন যা দিয়ে প্রচলিত পদ্ধতির চেয়ে ১০ হাজার গুণ কম ব্যাটারি খরচ করে ওয়াই ফাই ব্যবহার করা যাবে। ফলে মোবাইল চার্জ শেষ হওয়ার আর চিন্তা থাকবে না। নতুন এই প্রযুক্তির নাম দিয়েছে ’প্যাসিভ ওয়াই ফাই।’

এই গবেষক দলে রয়েছেন এক ভারতীয় বিজ্ঞানীও। ইউনিভার্সিটি অব ওয়াশিংটনের কম্পিউটার সায়েন্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারি অধ্যাপক শ্যাম গোল্লাকটা নতুন এই প্রযুক্তি সম্পর্কে বলেন,‘আমরা চেষ্টা করছি এমন একটি প্রযুক্তি উদ্ভাবন করার যেখানে ওয়াই ফাই ব্যবহার করতে কোন চার্জ দরকার হবে না। যা ’প্যাসিভ ওয়াইফাই’ হিসেবে পরিচিত হবে। নতুন এই প্রযুক্তি দিয়ে আমরা ১০ হাজার গুণ কম ব্যাটারি খরচ করে ওয়াই ফাই ব্যবহার করার উপায় বের করেছি।’

প্যাসিভ ওয়াইফাই প্রথমবারের মত ওয়াইফাই সিগন্যাল প্রতি সেকেন্ডে ১১ মেগাবাইট ডাটা প্রেরণ করতে পারে।ওয়াইফাই সিগন্যালের মাধ্যমে সঙ্কেতমুক্তভাবে এই প্রযুক্তিতে বিলিয়ন ওয়াইফাই ডিভাইসকে সংযুক্ত করা সম্ভব। তবে সর্বোচ্চ ওয়াইফাই স্পিডের চেয়ে এই প্রযুক্তির ওয়াইফাই গতি কম হলেও ব্লুটুথের চেয়ে ১১ গুণ বেশি শক্তিশালী।

‘ইন্টারনেট অব থিঙ্কস’কে বাস্তবে রুপ দিতে ওয়াইফাই ব্যবহার করতে কোন ব্যাটারির চার্জ দরকার হবে না বলে আশা করছেন গবেষকরা।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে গবেষক দল প্যাসিভ ওয়াইফাই ব্যবহার করে দেখেছেন প্যাসিভ ওয়াইফাই সেন্সরের মাধ্যমে ওয়াইফাই সেন্সর এবং স্মার্টফোনের মধ্যে ১০০ ফিট দুর থেকেও সংযোগ স্থাপন করা যায়।

প্যাসিভ ওয়াইফাই সেন্সর যে কোন রাউটার, স্মার্টফোন, ট্যাবলেট অথবা যে কোন ওয়াইফাই চিপসেট সমৃদ্ধ ডিভাইসের সাথে সংযুক্ত হতে পারে।

ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির প্রতিবেদন অনুসারে ২০১৬ সালে আগত নতুন প্রযুক্তির সেরা ১০ প্রযুক্তির মধ্যে অন্যতম প্রযুক্তি হল প্যাসিভ ওয়াইফাই।