মেইন ম্যেনু

কওমি মাদ্রাসার বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে বলেছেন খাদ্যমন্ত্রী

ব্যাঙের ছাতার মতো কওমি মাদ্রাসা গড়ে উঠছে আর সেখানে অস্ত্র ও বিস্ফোরক পাওয়া যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম। তিনি কওমি মাদ্রাসার বিরুদ্ধে মানবাধিকার-কর্মীদের সোচ্চার হতে বলেছেন।

বৃহস্পতিবার নগরীর মুসলিম হল মিলনায়তনে সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম মহানগর কমিটি আয়োজিত আর্ন্তজাতিক মানবাধিকার সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলে খাদ্যমন্ত্রী।

সম্মেলনে খাদ্যমন্ত্রী আরো বলেন, “বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর বাংলাদেশের মানুষ স্বপ্ন দেখা ভুলে গিয়েছিল। কেউ কল্পনাও করতে পারেনি পদ্মা সেতু হবে। প্রধানমন্ত্রী সেই অবাস্তবকেই বাস্তবে পরিণত করছেন।”

কামরুল বলেন, “প্রধানমন্ত্রী দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাইছেন। আর জঙ্গিদের পেছনে মদদ ও ইন্দন জোগাচ্ছে আমাদের একটি বড় দল।”

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, “এলাকায় এলাকায় ব্যাঙের ছাতার মতো কওমি মাদ্রাসা গড়ে উঠছে। এসব মাদ্রাসার অনেকগুলোতে অস্ত্র ও বিস্ফোরক পাওয়া যাচ্ছে। কোথাও ট্রেনিং দেওয়া হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে মানবাধিকার কর্মীদের সোচ্চার হতে হবে।”

কমিটির মহানগর সভাপতি ও চট্টগ্রাম মহানগর পিপি অ্যাডভোকেট ফখরুদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান আলোচক ছিলেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা ও পাবর্ত্য চট্টগ্রামবিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি বিচারপতি মো. আবদুস সালাম, সংগঠনের নেপাল কমিটির সভাপতি নেপালের সাবেক সংসদ সদস্য মো. নজিব মিঞ্চা, সংগঠনের মহাসচিব অধ্যাপক মাওলানা মোহাম্মদ আবেদ আলী, অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা এসএম মুর্তজা হোসাইন, এস এম আজিজ প্রমুখ।