মেইন ম্যেনু

কক্সবাজারের উখিয়ায় বেশি দামে ইউরিয়া সার বিক্রির অভিযোগ

কক্সবাজারের উখিয়ায় কালো বাজারে বেশি দামে ইউরিয়া সার বিক্রির গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। কতিপয় ডিলার ইউরিয়া সার (ছোট দানাদার) দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে খোলা বাজার হতে ক্রয় করে তা কালো বাজারে বিক্রি করার কারণে সরকারী ভাবে বরাদ্দকৃত ইউরিয়া সার গুদামে অবিক্রিত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। উখিয়ার ২ জন ডিলার কালো বাজারে সার বিক্রি কাজে জড়িত এমন অভিযোগ ব্যবসায়ীদের।

জানা যায়, উখিয়া উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নে চলতি আমন মৌসুমে ৮ হাজার ৫০ হেক্টর জমিতে চাষাবাদ হয়েছে। কৃষি মন্ত্রণালয় প্রান্তিক কৃষকদের ন্যায্য মূল্যে সার সরবরাহ করার লক্ষ্যে গত জুলাই মাসে ৪৭০ টন ও আগষ্ট মাসে ৪৭০ টন করে ইউরিয়া সার বরাদ্দ দেয়। বিসিআইসি কর্তৃক ১০ জন সার ডিলার ও উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক মনোনিত প্রতি ওয়ার্ডে ১ জন করে ৪৫ জন খুচরা সার ডিলার রয়েছে। উখিয়া কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুমন শীল জানান, কেজি ১৬ টাকা হারে প্রতি বস্তা ৮শ টাকা সার বিক্রি করার জন্য মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, সরকারী ভাবে বরাদ্দকৃত ইউরিয়া সার একটু বড় দানাদার। তবে স্থানীয় কৃষকদের চাহিদা ছোট দানাদার ইউরিয়া সার। তাই এখানকার এলাকায় ছোট দানাদার ইউরিয়া সারের চাহিদা বেশি। গুরুতর অভিযোগ উঠেছে মরিচ্যা স্টেশনের নুরুল ইসলাম ও উখিয়া সদর স্টেশনের নজির আহমদ নামক ২ জন ডিলার বেশি মুনাফা করার উদ্দেশ্যে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ছোট দানাদার ইউরিয়া সার সংগ্রহ করে উখিয়ার স্টেশন গুলোতে কালো বাজারে বিক্রি করছে। কেজি ৩০ থেকে ৩২ টাকা অর্থাৎ প্রতি বস্তা ১৬শ টাকা থেকে শুরু করে ১৮শ টাকা পর্যন্ত বিক্রি করা হচ্ছে বলে কৃষকরা জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে উখিয়ার সার ডিলারগণ জানান, কালো বাজারে সার বিক্রির কারণে সরকারী ভাবে বরাদ্দকৃত শত শত টন সার গুদামে অবিক্রিত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। ২ জন সার ডিলারের কালোবাজারির কারণে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সরবরাহকৃত ন্যায্য মূল্যের সার কেউ বিক্রি করতে পারছে না। নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, কালো বাজারে ইউরিয়া সার বিক্রির বিষয়টি উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাকে ডিলারগণ একাধিক বার মৌখিক ভাবে অবহিত করার পরও প্রশাসন অদ্যাবধি কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। অনেকের অভিযোগ প্রশাসন ও কৃষি বিভাগকে ম্যানেজ করে কতিপয় ২ জন ডিলার প্রকাশ্যে কালো বাজারে ইউরিয়া সার (ছোট দানাদার) বিক্রি করছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুমন শীল বলেন, সরকারী বরাদ্দকৃত ছাড়া অন্য কোন সার ডিলারগণ বিক্রি করার সুযোগ নেই। কালো বাজারে সার বিক্রির ঘটনা তদন্তে প্রমানিত হলে জড়িত ডিলারদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার বিধান রয়েছে।