মেইন ম্যেনু

কক্সবাজার জেলায় ৭৩ হাজার মামলা ঝুলে আছে

জেলা ও দায়রা জজ মোঃ সাদেকুল ইসলাম তালুকদার বলেছেন, জেলার ২২ লক্ষ মানুষের ঘাড়ে ৭৩ হাজার বিভিন্ন মামলা ঝুলে আছে। এসব মামলায় দ্রুত নিষ্পত্তি প্রয়োজন। মামলা বাড়ার কারনে পারিবারিক সমস্যা, আর্থিক ক্ষতি এবং আইনশৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটছে। সংবিধান হচ্ছে আইনের ‘মা’।

সরকার আইন দিয়েছে কিন্তু বাস্তবায়ন করার দায়িত্ব আমাদের। আমেরিকায় ১০ হাজার লোকদের জন্য একজন এবং এদেশে দেড় লক্ষ লোকের জন্য মাত্র একজন বিচারক রয়েছে। গরীব ও অসহায় জনগনের জন্য সরকারী খরচে আইনগত সহায়তা প্রদান করছে। সমাজের নারী, পুরুষ, শিশু যে কেউ অর্থের অভাবে যদি মামলা করতে না পারে অথবা বিনা বিচারে কারাগারে আটক থাকলে এবং মিমাংসার মাধ্যমে বিরোধ নিষ্পত্তিতে আগ্রহী হউন।

তাহলে সরকারী খরচে আইনগত সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে জেলা লিগ্যাল এইড অফিস। ৫ সেপ্টেম্বর শনিবার টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সরকারী আইনগত সহায়তা ও বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি সংক্রান্ত কর্মশালা এবং মতবিনিময় সভায় উপরোক্ত কথাগুলো সভাপতির বক্তব্যে বলেন।

জেলা যুগ্ন জজ মাহাবুবুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মোজাহিদ উদ্দিন।

এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন আদালতের হাকিম সোলতান মাহমুদ, চীপ জুড়িশিয়াল আদালতের হাকিম মোঃ তৌফিক আজিজ, জেলা বারের সভাপতি এড আহমদ হোসেন, সাধারন সম্পাদক গোলাম ফারুক খান কায়সার, পিপি এড মমতাজ আহমদ, নারী পিপি এড নুরুল ইসলাম, জিপি এড মোঃ ইসহাক, সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) উখিয়া আবদুল মালেক ও এড নুরুল মোস্তফা মানিক।

এসময় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওঃ রফিক উদ্দিন ও মডেল থানার ওসি আতাউর রহমান খোন্দকার। এছাড়া কর্মশালায় স্থানীয় জন প্রতিনিধি, শিক্ষক, এনজিও প্রতিনিধি, সরকারী বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, সাংবাদিক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।