মেইন ম্যেনু

কনসার্ট থামিয়ে লম্পট দর্শককে শায়েস্তা করলেন শিল্পী (ভিডিও)

মেক্সিকোতে একটা শো চলছিল স্প্যানিশ পপ তারকা আলেজান্দ্রো স্যানজের। গান গাইতে গাইতে হঠাৎ লক্ষ্য করলেন শ্রোতাদের মধ্যে একজন পুরুষ তার পাশের একটি মেয়েকে উত্যক্ত করেই চলেছে। শিল্পী শেষ পর্যন্ত অনুষ্ঠান থামিয়ে স্টেজ থেকে নেমে গিয়ে প্রতিবাদ জানালেন। বলে উঠলেন, ‘আপনি এটা কিছুতেই করতে পারেন না।’

স্প্যানিশ এ তারকা শিল্পী গ্র্যামি খেতাবজয়ী। সারা পৃথিবীর স্প্যানিশ ভাষাভাষীদের মধ্যে তিনি অত্যন্ত সুপরিচতি একটি নাম। কনসার্টের ওই ঘটনাটির ভিডিও ভাইরাল হয়ে যাওয়ার পর এখন তিনি নির্যাতনের বিরুদ্ধে এক প্রতিবাদী কণ্ঠস্বর হিসেবেও নিজেকে প্রতিষ্ঠা করে ফেলেছেন।

গত শনিবার উত্তর-পূর্ব মেক্সিকোর রোসারিওতে অনুষ্ঠিত কনসার্টে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, কনসার্ট চলাকালীন এক ব্যক্তি, যে মঞ্চটা ঠিকমতো দেখতে পাচ্ছিল না– সে তার পাশে এক তরুণীকে নানাভাবে উত্যক্ত ও লাঞ্ছিত করছিল। স্টেজ থেকে তা দেখতে পেয়ে স্যানজ গান থামিয়ে দেন ও তার গিটারটা নামিয়ে রাখেন। তারপর মঞ্চের পাশের সিঁড়ি দিয়ে সোজা নেমে হেঁটে যান ওই ব্যক্তির দিকে।

ওই ব্যক্তির দিকে আঙুল উঁচিয়ে শিল্পী বলেন, ‘আপনি এটা করতে পারেন না।’ লোকটি উল্টো উত্তেজিতভাবে প্রতিবাদ করলে শিল্পীর নির্দেশে নিরাপত্তারক্ষীরা তাকে কনসার্টের বাইরে বের করে দেয়।

শ্রোতারা তখনও কিন্তু ঠিক বুঝে উঠতে পারেনি কী ঘটছে। স্যানজ যখন মঞ্চ থেকে নেমে এসেছেন, তার ব্যাক-আপ ভোকালিস্টরা কিন্তু মঞ্চে গান চালিয়েই যাচ্ছিলেন। সেই গান শেষ হওয়ার পর শিল্পী মঞ্চে উঠে বলেন, ‘গোটা ব্যাপারটার জন্য আমি দুঃখিত। আসলে একজন আর একজনের ওপর আক্রমণ করবে এটা আমি কিছুতেই সহ্য করতে পারি না। আক্রান্ত একজন নারী তো আরও বেশি।’

এদিকের মেক্সিকোর মতে দেশে যেখানে নারী নির্যাতনের ঘটনা একটা জাতীয় সমস্যায় পরিণত হয়েছে সেখানে শিল্পীর এই বার্তা অভাবনীয় সাড়া ফেলেছে।

দেশটির জাতীয় পরিসংখ্যান প্রতিষ্ঠানের হিসাবে, মেক্সিকোতে ২০১৩ ও ২০১৪ সালে প্রতিদিন গড়ে সাতজন করে নারীকে হত্যা করা হয়েছে। আরও শত শত নারী দৈনিক নানা সহিংসতার শিকার হয়েছেন।