মেইন ম্যেনু

কবিরাজের ডাবের পানি খেয়ে অচেতন পরিবারের ৪ জন

কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার ঘোড়াকান্দা গ্রামে কবিরাজের ডাবের পানি খেয়ে একই পরিবারের চারজন অচেতন হয়ে পড়েছেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর থেকে কবিরাজ পলাতক। অচেতন হওয়া ব্যক্তিরা হলেন ঘোড়াকান্দা গ্রামের সিদ্দিকুর রহমান (৪৭), তাঁর স্ত্রী রেখা বেগম (৪০), তাঁদের ছেলে তপু মিয়া (২৬) ও তপুর স্ত্রী মরিয়ম বেগম বেগম (২১)। চিকিৎসার জন্য বিকেলে তাঁদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়।

অচেতন হওয়া সিদ্দিকুর রহমানের ভাই নাসির উদ্দিন জানান, তপুর ছোট ভাই দিপু মানসিক রোগী। তাঁর চিকিৎসার জন্য এক কবিরাজকে খবর দেওয়া হয়। কবিরাজ গতকাল রাতে বাসায় দিপুর চিকিৎসা শুরু করেন। রাত ২টার দিকে তিনি বাড়ির সবাইকে ডাবের পানি খাওয়ান। একপর্যায়ে ধীরে ধীরে বাসার চারজন অচেতন হয়ে পড়েন। কবিরাজ দ্রুত পালিয়ে যান। দিপুর চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এসে বাড়ির চারজনকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য চিকিৎসকদের পরামর্শে আজ বিকেলে চারজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

নাসির উদ্দিন জানান, ঘটনার পরপর কবিরাজ পালিয়ে যান। বাসার কিছু খোয়া গেছে কি না এখনো জানা যায়নি।

এদিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া জানান, ভৈরবে ডাবের পানি খেয়ে অচেতন হওয়া চারজনকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। চিকিৎসকরা তাঁদের চিকিৎসা দিচ্ছেন।