মেইন ম্যেনু

কবুতর চুরির মিথ্যা অপবাদে ২ শিশুকে গাছে বেঁধে পিটিয়েছে ইউপি সদস্য

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় কবুতর চুরির মিথ্যা অপবাদে স্থানীয় ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে দুই শিশুকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে।

গুরুতর আহতাবস্থায় এক শিশুকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় আহত শিশুর পরিবার থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

জানা গেছে, উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের ছোট বাশাইল গ্রামের খোকন বেপারির ছেলে ও ছোট বাশাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র সাগর বেপারি (১০) এবং একই এলাকার মোহাম্মাদ আলী শিকদারের ছেলে ও বাশাইল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র তুষার শিকদারকে (১২) কবুতর চুরির মিথ্যা অপবাদে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন চালানো হয়।

শুক্রবার বিকেলে ছোট বাশাইল কালুশাহ মাজারের উত্তর পাশে দুই শিশুকে নারকেল গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়েছিল।

এদিকে ছেলে নির্যাতনের সংবাদ শুনে সাগরের মা রওশনারা বেগম ঘটনাস্থলে এসে তার ছেলেকে নির্যাতন না করতে ইউপি সদস্যের কাছে অনুরোধ করে। তখন তাকেও লাঞ্ছিত করা হয়।

প্রায় তিন ঘণ্টা শিশু দুটির ওপর নির্যাতন চালিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়।

পরে সাগরের মা রওশনারা বেগম ও মামা আব্বাস উদ্দিন আহত দুই শিশুকে উদ্ধার করে গুরুতর অবস্থায় সাগরকে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আহত তুষারকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

সাগরের মা রওশনারা বেগম সাংবাদিকদের বলেন, আমার ছেলেকে ইউপি সদস্য গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করেছে, আমি এর উপযুক্ত বিচার চাই।

অভিযুক্ত মেম্বর বরকত উল্লাহ বলেন, তিনি নির্যাতন করেননি। মনির ও অন্যরা শিশু দুটিকে নির্যাতন করেছে।

এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান মো. ইলিয়াস তালুকদার সাংবাদিকদের জানান, নির্যাতনের ঘটনা আমার জানা নেই। তবে ওসি আমাকে ফোনের মাধ্যমে জানিয়েছেন।

আগৈলঝড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মনিরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। নির্যাতিত পরিবার থেকে মামলা করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।