মেইন ম্যেনু

কর্ণফুলীতে ছড়িয়ে পড়েছে ফার্নেস অয়েল

চট্টগ্রাম দোহাজারী রেললাইনের বোয়ালখালী বেঙ্গুরা এলাকায় রেলওয়ের একটি ব্রিজ ভেঙে ইঞ্জিনসহ চারটি তেলবাহী ওয়াগন লাইনচ্যুত হয়ে পড়ায় হারগেজি খালে ফার্নেস অয়েল ছড়িয়ে পড়েছে।

কর্ণফুলী নদীর সঙ্গে এ খালটির সংযোগের কারণে শনিবার কর্ণফুলী নদীতে ওই ফার্নেস অয়েল ভাসতে দেখা গেছে।

শুক্রবার বিকেল দোহাজারী যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনায় রেল কর্তৃপক্ষ ছয় সদস্যবিশিষ্ট পৃথক দু’টি তদন্ত কমিটি গঠনের পাশাপাশি দুই প্রকৌশলীকে বরখাস্ত করেছে।

এদিকে কর্ণফুলী নদীতে এ ফার্নেস অয়েল ভাসতে দেখে স্থানীয় লোকজন পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন।

ধলঘাট স্টেশন মাস্টার অনুপম সেন বলেন, ‘ডুবে যাওয়া ওয়াগন থেকে জ্বালানি তেল বের করতে না পারায় উদ্ধার কাজ বন্ধ থাকায় চট্টগ্রাম-দোহাজারী লাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। দোহাজারী পিকিং পাওয়ার প্ল্যান্টের জন্য আটটি ওয়াগন ফার্নেস অয়েলবাহী চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলী থেকে ছেড়ে আসা প্রতিটি ওয়াগনে প্রায় ২৬ হাজার ৮০০ লিটার ফার্নেস অয়েল রয়েছে।’

পূর্বাঞ্চল রেলওয়ের ডিভিশনাল ট্রান্সপোর্টেশন অফিসার ফিরোজ ইফতেখার জানান, বোয়ালখালীর বেঙ্গুরা রেলওয়ের ২৪নং সাকিরাপুলে ফার্নেস অয়েলবাহী ট্রেনের তিন ওয়াগনসহ ইঞ্জিনটি লাইনচ্যুত হয়। এতে দু’টি ওয়াগন খালের পানিতে পড়ে গেলে সেখান থেকে আশপাশের এলাকায় বিপজ্জনকভাবে তেল ছড়িয়ে পড়ছে। তবে এখনও নির্দিষ্ট সীমাবদ্ধতার মধ্যে রয়েছে ওই ছড়িয়ে পড়া তেল।

পরিবেশ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক হাফিজুর রহমান জানান, ডুবে যাওয়া ওয়াগন থেকে বিপুল পরিমাণ ফার্নেস অয়েল খালের সীমানা পেরিয়ে কর্ণফুলীতে ছড়িয়ে পড়ছে।

এ অবস্থার উন্নতির দ্রুত চেষ্টা চালানো হচ্ছে। কারণ চাষাবাদের জমিতে তেল ছড়িয়ে মারাত্মক পরিবেশ বিপর্যয়ের সম্মুখীন হবে।