মেইন ম্যেনু

কর্মী অসন্তোষ : বাংলালিংক কার্যালয়ে ‘ছুটি’

কর্মী অসন্তোষের মুখে নিজেদের অধিকাংশ কার্যালয়ের কার্যক্রম একদিনের জন্য বন্ধ (ছুটি) ঘোষণা করেছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইলফোন কোম্পানি বাংলালিংক।

রোববার কর্মীদের ইমেইলে বার্তা পাঠিয়ে এ ঘোষণা দেয়া হয় বলে জানান প্রস্তাবিত বাংলালিংক এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সভাপতি উজ্জ্বল পাল জানান।

তিনি বলেন, ‘কাস্টমার কেয়ার কলসেন্টার আর দৈনন্দিন রুটিন কাজে দায়িত্বপ্রাপ্তরা ছাড়া অন্যান্য সব বিভাগ বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়া হয়েছে।’ কেন বন্ধ করা হয়েছে এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যাখ্যা দেয়নি বলে জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, ‘সকাল থেকে আত্মসাতের অনেক কর্মীকে প্রধান কার্যালয়ে (গুলশান ১ অবস্থিত) প্রবেশ করতে দিচ্ছে না।’ এর আগে উজ্জ্বল পাল জানান, কর্তৃপক্ষের জেরার মুখে রোববার ট্যাকনিকাল বিভাগের মোশতাক আহমেদ নামে এক কর্মকর্তা অসুস্থ হয়ে যান। তিনি এখন ইউনাইটেড হাসপাতালের গুলশান শাখায় চিকিৎসা নিচ্ছেন।

গত বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) কোনো ধরনের নোটিশ ছাড়াই কন্সট্রাকশন টিমের প্রধান সিনিয়র প্রকৌশলী শরিফুল ইসলাম ভুঁইয়াকে চাকরিচ্যুত করায় বাংলালিংকের প্রধান টেকনিক্যাল কর্মকর্তা (সিটিও) পেরিয়েন এলহেমিকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে তার কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখেন প্রতিষ্ঠানটির দুই শতাধিক কর্মী। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মধ্যস্ততায় ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশ্বাসে প্রায় ৯ ঘণ্টা অবরুদ্ধ থাকার পর মুক্ত হোন পিরিহেনি এলহামি।

ইউনিয়নের সভাপতি উজ্জ্বল পাল শুক্রবার বলেন, ‘শেষ রাতের দিকে পুলিশ-র‌্যাবের উপস্থিতিতে বাংলালিংকের ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেয়ার পর আমরা অবরোধ তুলে নেই’।

উজ্জল পাল বলেন, ‘রোববার (আজ) এ বিষয়ে বাংলালিংক কর্তৃপক্ষ ইউনিয়নের সঙ্গে বৈঠকে বসতে রাজি হয়েছে।’ তবে আজ কোনো বৈঠক হয়নি বলেন জানান উজ্জল পাল।