মেইন ম্যেনু

কলকাতায় প্রশংসিত ঢাকার নাট্যদল এথিক

কলকাতার সুকান্ত সদন মঞ্চে অভিনয় করছিলেন ঢাকার নাট্য সংগঠন ‘এথিক’র একদল নিবেদিত প্রাণ নাট্যকর্মী। নাটকের নাম ‘হাঁড়ি ফাটিবে’। তাদের অভিনয় শেষে নাট্যমঞ্চে উপস্থিত কয়েক শত দর্শক এক সাথে দাঁড়িয়ে আবেগ আপ্লুত কণ্ঠে অভিবাদন জানিয়েছেন।

সেই দর্শক সারিতে উপস্থিত ছিলেন স্বনামধন্য নাট্যব্যক্তিত্ব চন্দন সেন ও আশিষ গোস্বামীসহ আরো অনেক প্রিয় মুখ। তারাও এথিক’র নাটক দেখে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন। বললেন, ‘উৎপল দত্তের এই নাটকটি কলকাতার একাধিক দল একাধিকবার মঞ্চস্থ করেছে। কিন্তু ঢাকার এথিক’র পরিবেশনাটি এক কথায় চমৎকার।’

কলকাতার জনপ্রিয় নাট্য সংগঠন সাগ্নিক’র ২৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আন্তর্জাতিক এক নাট্য উৎসবে ঢাকার নাট্য সংগঠন ‘এথিক’ তাদের নাটক মঞ্চায়নের আমন্ত্রণ পায়। সংগঠনের উপদেষ্টা নাট্যব্যক্তিত্ব রেজানুর রহমান ও আহ্বায়ক অপু শহীদের নেতৃত্বে গেল ২০ আগস্ট ঢাকা থেকে কলকাতায় উপস্থিত হয় এথিক’র সদস্যরা।

২১ আগস্ট বারাকপুরের সুকান্ত সদন মঞ্চে উৎসবের দ্বিতীয় দিনে এথিক তাদের আলোচিত মঞ্চ নাটক উৎপল দত্তের ‘হাড়ি ফাটিবে’ মঞ্চস্থ করে। অপু শহীদের নির্দেশনায় নাটকটিতে অভিনয় করেছেন কাজী প্যারিস, হাসনে আরা ডালিয়া, সুকর্ণ হাসান, মনি কানচন, মিন্টু সরদার, পথিক পলাশ, আফসা পারভিন, এম হাসান রিজভী, হাসান রুবেল, রিমন ও জাহাঙ্গীর আলম।

উৎসবের প্রথমদিনে কলকাতার নাট্য সংগঠন নান্দিকারের বহুল আলোচিত নাটক ‘অজ্ঞাতবাস’ মঞ্চস্থ হয়। উৎসবের তৃতীয় অর্থাৎ শেষ দিনে কলকাতার আরেকটি নাট্য সংগঠন হযবরল তাদের বহুল আলোচিত নাটক ‘ইপসা’ মঞ্চস্থ করে।

উৎসবে ঢাকার নাট্যদল এথিক’র তরুণ নাট্যকর্মীরা তাদের অভিনয় সৌকর্য ও মেধার দ্যূতি ছড়িয়ে কলকাতার বিশিষ্ট নাট্যজনের মনযোগ আকর্ষণ করে। নন্দিত নাট্যজন দেবশংকর হালদারের সাথে এথিক এর সদস্যরা এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হয়। সভায় ঢাকা ও কলকাতার মঞ্চ নাটক বিষয়ে মতবিনিময় হয়। এসময় এথিক এরপক্ষে নেতৃত্ব দেন নাট্যকার আনন্দ আলোর সম্পাদক রেজানুর রহমান।