মেইন ম্যেনু

কলারোয়ায় মোস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপির জলাবদ্ধ এলাকা পরিদর্শন

সরকার মানুষের খাদ্য নিরপত্তা নিশ্চিতসহ দেশের সার্বিক উন্নয়নে মাইল ফলক উন্মেচন করেছে। বিশ্বের কাছে বাংলাদেশ বর্তমানে মধ্যম আয়ের দেশ হিসাবে পরিচিত পেয়েছে। গরীব ও অসহায় মানুষের মাথা পিছু আয় বেড়েছে। স্বাস্থ্য সেবা দোর গোড়ায় পৌছে যাওয়ায় সব মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে।

শুক্রবার অনির্ধারিত ভাবে তিনি কলারোয়ার জয়নগর ইউনিয়নের পানি বন্দি মানুষের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন। এসময় তার সাথে ছিলেন, জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শেখ ফিরোজ আহম্মেদ, জয়নগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদ মো: বজলুর রশীদ, যুবলীগ নেতা রিজাউল বিশ্বাস, আ.লীগ নেতা আব্দুর রহমান, প্রমুখ।

তিনি পানি বন্দি অসহায় মানুষের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, বিপদে ধৈর্য ও সাহস নিয়ে সকল বাধা মোকাবেলা করতে হবে। সরকার আপনাদের পাশে আছে। গরীব ও অসচ্ছল মানুষের প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। জরুরী ভিত্তিতে খাদ্য ত্রান হিসাবে প্রতিটি পরিবারকে চাল প্রদান করা হয়েছে। সরকারি অর্থে জয়নগর স্লুইজ গেটের মুখ বন্দ করে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতির হাত থেকে এলাকাবাসির জান মালসসহ সহায় সম্পদ রক্ষা করা হয়েছে। প্রয়োজন হলে আরো সহায়তা প্রদান করা হবে। এলাকার প্রতিটি নাগরিক যাতে নিরাপদে বসবাস করতে পারে সে বিষয়ে সরকারের সজাগ দৃষ্টি আছে। তিনি কৃষকদের বেশী বেশী ফসল উৎপাদনে মনোনিবেশ করে সম্প্রতি বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতার ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে পরামর্শ দেন

গতকাল দুপুরের ঝাঝালো রোদ উপেক্ষা করে তিনি পায়ে হেটে প্রতিটি জলাবদ্ধ এলাকা ঘুরে ঘুরে দেখেন। সাংসদ মুস্তফা লুৎফুল্লাহকে একা জলাবদ্ধ এলাকায় ঘুরতে দেখে গ্রামের নারী শিশুসহ সাধারন মানুষরাও তার পিছু নেয়। বয়ো বৃদ্ধরা বাড়ির ছেলে বা পাড়ার মানুষ মনে করে তাঁকে সঙ্গ দেন। এমপিকে কাছে পেয়ে ক্ষনিকের জন্য হলেও অনেকে ভূলে যান তাদের অভাব অনাটন বা কষ্টের কথা। এসময় সদা হাস্য উজ্জল জনদরদী এই মানুষটির জন্য অনেকেই দোয়া ও অর্শিবাদ করেন।

জয়নগর ইউপি চেয়াম্যান শেখ ফিরোজ আহম্মেদ বলেন, চলতি বর্ষা মৌসুমে কপোতাক্ষের উপছে পড়া ঢলে তার ইউনিয়নের প্রায় ১২শ’ পরিবার ক্ষতি গ্রস্ত হয়েছে। কয়েক কোটি টাকার মাছের ঘেরে প্লাবিত হয়েছে। কাচা পাকা রাস্তা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কৃষির উপর নেমে এসেছে চরম বিপর্যয়। প্রতি বছরই এলাকার মানুষ অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতির শিকার হচ্ছে। এ অবস্থার উত্তোরণ ঘটাতে তিনি দ্রুত পানি নিষ্কাশন ও কপোতাক্ষ খনন তরান্বিত করা জরুরী বলে মনে করেন।