মেইন ম্যেনু

কলারোয়ায় স্কুল-মাদরাসার প্রধানদের সাথে একাধিক বিষয়ে সভা অনুষ্ঠিত

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উদযাপন ও ৪৪ তম বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল ও মাদরাসা গ্রীস্মকালীন প্রযোগিতার প্রস্তুতিমূলক সভা এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্বতন্ত্র ডাইনামিক ওয়েবসাইট হস্তান্তরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলা অডিটোরিয়ামে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস আয়োজিত একাধিক আলোচ্যসূচির ওই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আ.লীগের সভাপতি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনুপ কুমার তালুকদার। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য দেন বাংলাদেশের অহংকার নন্দিত ক্রিকেট তারকা সৌম্য সরকারের গর্বিত পিতা জেলা শিক্ষা অফিসার কিশোরী মোহন সরকার।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমিক সুপার ভাইজার তাপস কুমার দাস, শিক্ষক নেতা প্রধান শিক্ষক আমানুল্লাহ আমান, অধ্যক্ষ ইউনুচ আলী, অধ্যক্ষ আইয়ুব আলী, প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামান বিপ্লব, প্রধান শিক্ষক হরিসাধন ঘোষ, প্রধান শিক্ষক আজহারুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক রুহুল আমিন, প্রধান শিক্ষক সাংবাদিক রাশেদুল হাসান কামরুল, প্রধান শিক্ষক আকতার আসাদুজ্জামান চান্দু, প্রধান শিক্ষক নূরুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক ফজলুল করিম, প্রধান শিক্ষক ইবাদুল হক, প্রধান শিক্ষক শফিউল আজম শেলি, প্রধান শিক্ষক উয়ায়েস আলী সিদ্দিকী বাবর, প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম, প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক অমলেন্দু কুমার, প্রধান শিক্ষক মুজিবর রহমান, প্রধান শিক্ষক রবিউল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক আব্দুস সাত্তার, প্রধান শিক্ষক ইমদাদুল হক, প্রধান শিক্ষক আকতারুজ্জামান, প্রধান শিক্ষক আব্দুল হান্নান, প্রধান শিক্ষক আনছার আলী, প্রধান শিক্ষক আমিরুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক ঘোষ সাধন কুমার, প্রধান শিক্ষক মোমিনুর রহমান, মাদরাসা সুপার মকবুল হোসেন, সুপার রেজাউল করিম, সুপার আবু ইউসুফ, সুপার আবুবক্কর সিদ্দীক, সুপার ইদ্রিস আলী, সুপার আব্দুল মোনায়েম, সুপার আসাদুজ্জামান, সুপার শাহাজাহান হোসেন, সুপার রবিউল হক, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের শেখ জাহিদ হাসান, সমর কুমার দেবনাথ, ওয়েবসাইট তৈরীতে সহযোগিতাকারী শেখ মিজানুর রহমান, মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান ও আফজাল হোসেন, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের ফজলুর রহমান, কলারোয়া রিপোর্টর্স ক্লাবের প্রচার সম্পাদক সাংবাদিক জুলাফিকার আলী প্রমুখ।

সভায় যথাযোগ্য মর্যাদায় প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালন, ১৭ আগস্ট থেকে ৪টি জোনে ৪৪ তম বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল ও মাদরাসা গ্রীস্মকালীন প্রযোগিতা শুরু এবং ৩২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাড়া বাকী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্বতন্ত্র ওয়েবসাইট আগামী ৩০ আগস্ট’র মধ্যে সফলভাবে তৈরী করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। অনুষ্ঠানে উপজেলার সকল স্কুল-মাদরাসার প্রধানগণসহ ক্রীড়া শিক্ষকমন্ডলী উপস্থিত ছিলেন। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবদুল হামিদ।