মেইন ম্যেনু

কলারোয়া উপজেলায় ব্যাপকভাবে ভার্মি কম্পোষ্ট সার ব্যবহার করে চাষীরা উপকৃত হচ্ছেন

কলারোয়া উপজেলায় ব্যাপকভাবে ভার্মি কম্পোষ্ট সারের ব্যবহার হচ্ছে। এখানকার ১৬০ জন কৃষক প্রতি দিন প্রায় ৪ থেকে ৫শ কেজি ভার্মি কম্পোষ্ট সার উৎপাদন করছেন। আর সেগুলো ব্যবহার করে কলারোয়ার হাজারো কৃষক অধিক লাভবান হচ্ছেন।

কলারোয়া উপজেলাতে ২০১৫ সালের জুলাই আগষ্ট মাসে শুরু হয় ভর্মি কম্পোষ্ট সারের উৎপাদন। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কলারোয়া’র কৃষি কর্মকর্তা মহসীন আলীর একান্ত প্রচেষ্টায় ৪০ জন চাষীকে নিয়ে শুরু হয় ভার্মি কম্পোষ্ট সার উৎপাদনের পথ চলা। গত ৪/৫ মাসের ব্যবধানে কলারোয়াতে মোট ১শ ৬০ জন কৃষক ভার্মি কম্পোষ্ট সার উৎপাদন করছেন।

কৃষি কর্মকর্তা জানান, আরো ২ থেকে ৩’শ চাষী রয়েছেন যারা আগামী ২/১ সপ্তাহের মধ্যে কম্পোষ্ট সার তৈরীর কাজে লেগে যাবেন। তিনি আরো বলেন, কলারোয়ার চাষীরা যে ভার্মি কম্পোষ্ট উৎপাদন করছেন সেটা হলো লোকষ্ট ভার্মি কম্পোষ্ট। এটি চাষীরা তাদের বাড়ির আঙ্গিনায় নান্দার মধ্যে কেঁচো ও গরুর গবর দিয়ে এ সার তৈরী করে থাকেন। যা উৎপাদন খরচ একেবারেই কম।

সম্প্রতি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খুলনা অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক ভুপেশ কুমার মন্ডল কলারোয়ার ভার্মি কম্পোস্ট সার প্ররিদর্শনে আসেন। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, দিনের পর দিন রাসায়নিক সার ব্যবহারের ফলে একদিকে যেমন জমির উর্বরতা শক্তি কমে যাচ্ছে অন্য দিকে জনসাধারানের একটা বিরাট অংশ ক্যন্সার,ডায়বেটিস,উচ্চ রক্তচাপ সহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। সে জন্য বর্তমান কৃষি বান্ধব সরকার কৃষি ক্ষেত্রে জৈব্য সারের সবার্তœক ব্যবহারের উপর জোর দিয়েছেন। তিনি আরো জানান, ভার্মি কম্পোষ্ট কেঁচো দিয়ে উৎপাদন করা হয়। এটি হলো গোরব , অন্যান্য বর্জ এবং কেঁচোর বিষ্টার মিশ্রণ। এতে কোঁচোর বিষ্টা থাকার কারনে প্রচুর পরিমানে অনুজীব থাকে। সে কারনে ক্ষেতে ভর্মি কম্পোষ্ট সার ব্যবহার করলে মাটির উর্বরা শক্তি বাড়িয়ে দেয়। এটি অনেক সস্তা সে জন্য কৃষিকের উৎপাদন খরচ কমে আসে। তারা অধিক লাভবান হয়।

কলারোয়া উপজেলার সোনাবাড়িয়া ও হেলাতলা ইউনিয়ন এর ব্যপক এলাকায় শাঁখ সবজি,ধান পাট সহ বিভিন্ন কৃষি কজে ব্যবপক ভাবে ভর্মি কেম্পাষ্ট সার ব্যবহৃত হচ্ছে। ঝাঁপাঘাট গ্রামের কৃষক আব্দুল জলিল জানান, ভার্মি কম্পোষ্ট ব্যবহার করে তিনি আগের চেয়ে বেশী লাভবান হচ্ছেন। তিনি নিজে ভার্মি কম্পোষ্ট সার উৎপাদন করছেন এবং অন্যকে ও উৎপাদন করার জন্য উৎসাহিত করছেন।

কলারোয়া উপজেলাকে রাসায়নিক সারের ব্যবহার থেকে মুক্ত করে ব্যাপকভাবে জৈব সার / ভার্মি কম্পাষ্ট সারের ব্যবহারের জন্য যা কিছু প্রয়োজন তা করার জন্য এলাকার হাজারো চাষী সরকারের সংশ্লিষ্ঠ কতৃপক্ষের নিকট জোর দাবী জানিয়েছেন।