মেইন ম্যেনু

কল্পনা থেকে বাস্তবে তৈরী হল তিন তলা বিশিষ্ট মনোমুগ্ধকর ভাসমান বাড়ি!

সম্প্রতি এমন এক দৃষ্টিনন্দন বাড়ি বানানো হচ্ছে দুবাইয়ের অগভীর সমুদ্রে যা এতদিন শুধু কল্পনাতেই সীমাবদ্ধ ছিল। তিনতলা এ বাড়ির পানির নিচে থাকছে এক তলা, যার কাচের দেয়াল দিয়ে দেখা যাবে পানির নিচের অসম্ভব সুন্দর দৃশ্য। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে কিউজেড।

‘ফ্লোটিং সিহর্স’ নামে একসারি বাড়ি তৈরি করছে ক্লেইনডিয়েন্স গ্রুপ। মূলত ভাসমান নাম দেয়া হলেও এ বাড়িগুলো সাগরে ভাসমান না। বরং অগভীর সাগরেই এ বাড়িগুলো তৈরি করা হচ্ছে।

হার্ট অফ ইউরোপ নামে কৃত্রিম দ্বীপে এ বাড়িগুলো তৈরি করা হচ্ছে। এগুলো তৈরিতে মূলত ইউরোপিয়ান ডিজাইন ও ঐতিহ্যের কথা মাথায় রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্মাতারা।

image_229141_2.upper-deck

মিলিয়ন ডলারের দৃষ্টিনন্দন ভাসমান বাড়ি বাড়িগুলোতে রয়েছে তিনটি করে তলা। এর প্রধান ফ্লোরটি থাকছে সমুদ্র সমতলে। এ ছাড়া তার নিচে সমুদ্রের তলে একটি তলা এবং উপরে আরেকটি তলা রয়েছে।

বাড়ির নিচের তলাটি মূলত মাস্টার বেডরুম। এতে দেয়ালগুলো থাকছে কাচের। এটি পানির তলায় ডুবে থাকবে এবং এখান থেকে সমুদ্রের মনোরম দৃশ্য দেখা যাবে।

নির্মাতা সংস্থা ক্লেইনডিয়েন্স গ্রুপ জানিয়েছে, বাড়িগুলোকে যে নামেই পরিচিত করানো হোক না কেন, এগুলো মূল এক একটি নৌকার মতোই। কারণ এগুলো ভাসমান। এছাড়া এগুলো নড়াচড়ার যোগ্যও নয়। এতে থাকছে সম্পূর্ণ সজ্জাকৃত রান্নাঘর, পানির নিচের বেডরুম ও সূর্যতাপ উপভোগের জন্য ডেক।
মিলিয়ন ডলারের দৃষ্টিনন্দন ভাসমান বাড়ি

image_229141_1.underwater-master-bedroom (1)

নির্মাতা প্রতিষ্ঠান আরো জানিয়েছে, এ ধরনের প্রত্যেকটি বাড়ি তারা বিক্রি করছে ১.৮ মিলিয়ন ডলার করে। এ ধরনের মাত্র ৪২টি বাড়ি তৈরি করা হচ্ছে দুবাইতে। আর এগুলোর মধ্যে ৩৫টি ইতোমধ্যেই বিক্রি হয়ে গেছে। কাজেই কারো কেনার ইচ্ছে থাকলে দ্রুত যোগাযোগ করতে হবে। এ প্রকল্প ২০১৬ সালের শেষ দিকে সমাপ্ত হবে এবং ২০১৭ সালের শুরুতে এখানে মানুষ বসবাস করতে পারবে।

মিলিয়ন ডলারের দৃষ্টিনন্দন ভাসমান বাড়ি দুবাইয়ের উপকূলের কাছাকাছি অগভীর সমুদ্রে নির্মিত হচ্ছে অনেকগুলো কৃত্রিম দ্বীপ। এগুলোর একটি হলো দ্য ওয়ার্ল্ড। এ প্রকল্পেরই একটি অংশ এ দৃষ্টিনন্দন বাড়িগুলো। ২০০৮ সালে আর্থিক সংকটের কারণে এর কাজ কিছুদিন বন্ধ থাকলেও এখন তা পুরোদমে চলছে।

image_229141_0.the-floating-seahorse-cbb7