মেইন ম্যেনু

কাঁধের ব্যথায় বাড়ে হৃদরোগের আশঙ্কা

আপনি যদি কাঁধের ব্যথায় ভোগেন তাহলে এ ব্যথাকে মোটেই অবহেলা করবেন না। এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে বিষয়টির কারণ হতে পারে গুরুতর কোনো সমস্যা।

এমনকি হৃদরোগের আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যায় না। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

সাম্প্রতিক এক গবেষণায় জানা গেছে, কাঁধের ব্যথা হতে পারে হৃদরোগের লক্ষণও। এ বিষয়ে গবেষণাটি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকরা। আর তাই কাঁধের ব্যথাকে কোনোভাবেই হেলাফেলা না করার পরামর্শ দিয়েছেন গবেষকরা।

যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ইউটাহ স্কুল অব মেডিসিনের প্রফেসর কার্ট হেগম্যান বলেন, ‘কারো যদি কাঁধের ব্যথা হয় তাহলে সতর্ক হতে হবে। কারণ এটি এর আশপাশের কোনো ঘটনার কারণেও হতে পারে, যার বাইরে নয় হৃদরোগও। ’

এ বিষয়ে গবেষণার জন্য গবেষকরা ১,২২৬ জন দক্ষ শ্রমিকের ওপর অনুসন্ধান চালান। তাদের হৃদরোগের বিভিন্ন ঝুঁকি চিহ্নিত করেন তারা। এর মধ্যে ছিল উচ্চ রক্তচাপ, উচ্চ কোলস্টেরল, ডায়াবেটিস ইত্যাদিও। তবে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে দেখা যায় বেশ বড় একটি অংশের কাঁধের ব্যথার পাশাপাশি হৃদরোগ রয়েছে। ফলে বিষয়টি নতুন করে গুরুত্ব দিয়ে দেখতে বাধ্য হন গবেষকরা।

যাদের কাঁধের জয়েন্টে ব্যথা রয়েছে তাদের অন্যদের তুলনায় ৪.৬ গুণ বেশি হৃদরোগের আশঙ্কা আছে বলে উঠে এসেছে গবেষণাটিতে। আর তাদের যদি দ্বিতীয় কাঁধেও ব্যথা থাকে তাহলে তাদের হৃদরোগের আশঙ্কা ছয় গুণ বেশি হয়ে থাকে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

এ বিষয়ে গবেষক হেগম্যান বলেন, ‘হৃদরোগের ঝুঁকির বিষয়টি নির্ণয়ে আপনি কোন ধরনের কাজ করছেন তার চেয়ে বিভিন্ন অসুবিধার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। তবে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ ও অন্যান্য ঝুঁকি কমিয়ে কাঁধের সমস্যার পাশাপাশি হৃদরোগের ঝুঁকিও কমানো সম্ভব। ’
এ বিষয়ে গবেষণাটির ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে জার্নাল অব অকুপেশনাল অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল মেডিসিন জার্নালে।