মেইন ম্যেনু

কাউন্সিলে বিদেশি রাজনীতিবিদদের আমন্ত্রণ জানাবে বিএনপি

১৯ মার্চ অনুষ্ঠেয় বিএনপির জাতীয় সম্মেলন ও কাউন্সিলকে ঘিরে পুরোদমে কাজ চলছে। আর এ উপলক্ষে বিভিন্ন দেশের রাজনৈতিক দল ও রাজনীতিবিদদের আমন্ত্রণ জানাবে দলটি। তবে কোন কোন দেশ কিংবা কাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো হবে তা জানানো হয়নি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের কেন্দ্রীয় দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ এ তথ্য জানিয়েছেন।

বিদেশিদের আমন্ত্রণ প্রসঙ্গে রিজভী আহমেদ বলেন, ‘বিএনপির ১৯ মার্চের জাতীয় সম্মেলন ও কাউন্সিল উপলক্ষে ব্যাপক প্রস্তুতির অংশ হিসেবে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক উপ-কমিটি কোন কোন দেশে আমন্ত্রণ পাঠাবেন সেটি চূড়ান্ত করেছেন। দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা এর আগে যে সমস্ত দেশের রাজনৈতিক দল ও নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন তাদেরকেই সে বিষয়ে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।’

জানা যায়, ২০০৯ সালের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত বিএনপির পঞ্চম জাতীয় কাউন্সিলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, চীন, ভারত, পাকিস্তান, তুরস্ক, মিশর, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ গণতান্ত্রিক বিভিন্ন রাষ্ট্রকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির কাউন্সিলরদের তালিকা প্রসঙ্গে রিজভী বলেন, ‘আগামী কাউন্সিলে শতকরা ৯০ ভাগ কাউন্সিলরদের তালিকা প্রস্তুত হয়ে গেছে। এছাড়া কাউন্সিলে শোক প্রস্তাবের জন্য বিএনপির নেতাকর্মীদের মৃত্যু তালিকা প্রস্তুতির কাজ শতকরা ৬০ ভাগ সম্পন্ন হয়েছে।’

এ প্রসঙ্গে রিজভী আরো বলেন, ‘প্রচার ও ব্যবস্থাপনা উপ-কমিটির প্রস্তাব সম্পন্ন প্রায়। শুধু স্থানের অনুমতির অপেক্ষা। প্রচারের জন্য অন্য মাধ্যমের সঙ্গে ইন্টারনেট ও ফেসবুকের মতো সোশ্যাল মিডিয়া ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হবে।’

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হওয়া নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন বিএনপির এ যুগ্ম-মহাসচিব। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার ডুমুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. নুরুল আমিন গত ২২ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র দাখিল করে রিসিভ কপি চাইলে কর্তব্যরত কর্মকর্তা তাকে জানান যে, রিসিভ করা আমার কাজ নয়। পরে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের প্রতিরোধের মুখে তিনি সেখান থেকে চলে যান। পরেরদিন প্রার্থীকে জানিয়ে দেয়া হয় যে, তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। শুধু ডুমুরিয়া ইউপিতেই নয়, সারাদেশে বিএনপির প্রার্থীদের এভাবে মনোনয়নপত্র জমাদানে বাধা দেয়া হচ্ছে।’

তবে এখন পর্যন্ত বিএনপির কতজন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে কিংবা জমাদানে বাধা দেয়া হয়েছে, তার সঠিক পরিসংখ্যান দিতে পারেননি রিজভী। বুধবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী আহমেদ অভিযোগ করে বলেছিলেন, ‘সরকার ও সরকারি দলের বাধার কারণে বিএনপি মনোনীত ৮৩ প্রার্থী মনোয়নপত্র জমা দিতে পারেনি।’

রিজভী আহমেদ অভিযোগ করে বলেন, ‘বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নামে ফেসবুক একাউন্ট খুলে চালানো হচ্ছে। এর সঙ্গে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের কোনো সংশ্লিষ্টতা বা সম্পর্ক নেই। তাছাড়া এ বিষয়ে তার কাছ থেকে কোনো অনুমতিও নেয়া হয়নি। সম্পূর্ণ অসৎ উদ্দেশ্যে কতিপয় অসাধু ব্যক্তি এই ফেসবুক চালাচ্ছে।

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘অবিলম্বে এটি বন্ধ না করলে আইনগত কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’