মেইন ম্যেনু

কাজল আর আমার জীবনে ফিরবে না, বললেন করণ

কাজল আর করণ জোহরের বন্ধুত্ব যেন বলিউডের এক গল্প কথা। ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ হোক বা ‘মাই নেম ইজ খান’। পরিচালক-নায়িকা তো বটেই, তাঁদের সম্পর্কে তার থেকেও বেশি ছিল বন্ধুত্ব। হ্যাঁ ছিল। অন্তত কর্ণ তো সোশ্যাল মিডিয়ায় তেমনই ইঙ্গিত দিচ্ছেন।

এই সম্পর্কে চিড় ধরেছিল মাস দু’য়েক আগে। কর্ণের ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ এবং অজয় দেবগানের ‘শিবায়’ একই দিনে মুক্তি নিয়ে সমস্যা দেখা দিয়েছিল। পরোক্ষে একে অপরকে কটাক্ষ করেছিলেন।

এমনকী, অভিনেতা কমল আর খান টুইট করে জানিয়েছিলেন, ‘শিবায়’ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়

বদনাম করার জন্য কর্ণ নাকি তাঁকে টাকা দিয়েছিলেন! এত সবের পরও এই বন্ধুত্ব অটুট থাকবে বলেই মনে করেছিল সিনে মহল। কিন্তু তা বোধহয় আর হওয়ার নয়। অন্তত টুইটে সে ইঙ্গিতই দিয়েছেন করণ।

বিষয়টা ঠিক কী? অটোবায়োগ্রাফি ‘অ্যান আনসুটেবল বয়’-তে করণ শেয়ার করেছেন তাঁর মনের কথা। লিখেছেন, কী ভাবে কাজলের প্রতি তাঁর ঘৃণা একটু একটু করে জমেছে। বিশেষত ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ পর্বে যে সেই তিক্ততা আরও বেড়েছে ইঙ্গিত রয়েছে সে সবেরও। করণ লিখেছেন, ‘আমার আর কাজলের সঙ্গে কোনো সম্পর্ক নেই। ভেঙে গেছে।

এমন কিছু হয়েছে যেটাতে আমি খুব বিরক্ত হয়েছি। কিন্তু সেটা আমি সকলের সামনে বলতে চাই না। বরং আড়ালেই রাখতে চাইব। সেটাই বোধহয় আমার আর কাজলের জন্য ভাল হবে। ২৫ বছর ধরে যে ইমোশন আমার তৈরি হয়েছিল, সব কিছুকে মেরে ফেলেছে। ও আর আমাকে ডিজার্ভ করে না। আড়াই দশক পরে সম্পর্ক ভাঙল কাজল। কখনো আরও আমার জীবনে ফিরে আসবে না। ’

করণের এই বক্তব্যই ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। মুহূর্তের মধ্যে তা ভাইরাল। তার পরই নড়েচড়ে বসেছে বলিউড। অনেকেই এর আসল কারণ জানতে চাইছেন। তবে কাজল এ ব্যাপারে এখনো মুখ খোলেননি।-আনন্দবাজার