মেইন ম্যেনু

কাতার বিশ্বকাপে বেদুইন তাঁবুতে থাকবেন সমর্থকরা!

২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ কাতার। আর কাতারে সেই টুর্নামেন্টের আয়োজকরা বলছেন ওই বিশ্বকাপ দেখতে যেসব ফুটবল ভক্ত আসবেন তাদের হয়ত মরুভূমিতে বেদুইনদের থাকার মত তাঁবুতে থাকতে হবে।
তাদের মতে, কাতারে খেলা দেখতে যে পাঁচ লাখ সমর্থক ভিড় জমাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে তাদের স্টেডিয়ামগুলোর কাছাকাছি ক্যানভাসের তাঁবুর ভেতর থাকার ব্যবস্থা করতে হবে। ফিফা সেখানে উদ্যোক্তাদের ৬০ হাজার থাকার ঘরের ব্যবস্থা করতে বলেছে।

কিন্তু যেভাবে কাজ এগোচ্ছে তাতে এত ঘর এই সময়ের মধ্যে তৈরি করা সম্ভব হবে না বলে উদ্যোক্তারা এধরনের তাঁবু দিয়ে কাজ চালানোর বিষয়টি সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করছেন। এ বিষয়ে কাতার বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ কমিটির একজন মুখপাত্র বলেন, ‘এই বিশ্বকাপের কেন্দ্রে রয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের আতিথেয়তা ও বন্ধুত্বকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরা আর সেটাতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সে কারণেই ভক্তদের আকাশের তারার নিচে তাঁবুতে থাকার বিষয়টা নিয়ে আমরা গুরুত্বের সঙ্গে ভাবছি এবং বিষয়টি নিয়ে গবেষণাও চালাচ্ছি।’

এসময় তিনি আরও বলেছেন, তাঁবু একটা সৃজনশীল আইডিয়া এবং মধ্যপ্রাচ্যের মরু সংস্কৃতির গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহ্য। কাজেই ফিফার দাবি পূরণে এই ভাবনাকে কাজে রূপ দেওয়ার কথা আমরা গুরুত্বের সঙ্গে চিন্তাভাবনা করছি। আরব ও সিরিয়ার মরু অঞ্চলে ঐতিহাসিকভাবে বেদুইনরা তাঁবু জীবনে অভ্যস্ত ছিলেন।

কাতারের বহু সম্ভ্রান্ত পরিবার এখনও সেই ঐতিহ্য মেনে শীত মৌসুমে তাঁবুতে সময় কাটান। তবে সেখানে অবশ্যই থাকে বিদ্যুতের ব্যবস্থা এবং খাবারের বন্দোবস্ত। এ তথ্য জানিয়ে ওই মুখপাত্র বলেন বিশ্বকাপে এধরনের তাঁবু বানানো হলে সেখানেও বিদ্যুত ও খাওয়াদাওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। জানিয়ে রাখা ভালো যে, প্রচন্ড গরমের কারণে কাতার বিশ্বকাপ জুন-জুলাই থেকে ডিসেম্বরে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।



« (পূর্বের সংবাদ)