মেইন ম্যেনু

কারাগারে ভয়াবহ হামলা, ফিলিপাইনে ১৫০ বন্দি পালিয়েছে

ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চলে একদল বন্দুকধারী একটি কারাগারে হামলা চালালে ১৫০ জনেরও বেশি বন্দি সেখান থেকে পালিয়ে যায়। বন্দুকধারীদের হামলায় এক কারারক্ষী নিহত হয়েছেন। চলছে নিরাপত্তাবাহিনীর অভিযান।

বুধবার সকালে মিন্দানাও দ্বীপের কিদাপাওয়ান শহরের নিকটবর্তী নর্থ কোটাবাটো জেলার কারাগারে একদল বন্দুকধারী হামলা চালায়। কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রক্ষীদের সঙ্গে বন্দুকধারীদের সংঘর্ষ চলাকালে অন্তত ১৫০ কারাবন্দি পালিয়ে যায়। হামলায় এক কারারক্ষী নিহত হন এবং পালানোর সময় এক বন্দি আহত হয়েছেন।

কারাগারের ওয়ার্ডেন পিটার বোঙ্গাট স্থানীয় সংবাদমাধ্যম এবিএস-সিবিএন-কে বলেন, ‘ব্যাপক গোলাগুলির সুযোগে কারাবন্দিরা পালিয়েছে। তারা তাদের বিছানাপত্র ব্যবহার করে, একে-অপরের উপর চড়ে কারাগার থেকে পালিয়েছে।’

তিনি আরও জানান, কারাগারে আটক কয়েকজন বিদ্রোহী নেতাকে মুক্ত করার জন্যই এই হামলা চালানো হয় বলে কর্তৃপক্ষের ধারণা। ওই কারাগারে প্রায় দেড় হাজার বন্দি রয়েছেন।

এদিকে, ফিলিপাইনের সেনাবাহিনী ও পুলিশ কর্তৃপক্ষ পালিয়ে যাওয়া বন্দিদের আটক করতে অভিযান শুরু করেছে। এতে এখন পর্যন্ত অন্তত ছয় কারাবন্দিকে আটক করা সম্ভব হয়েছে।

ফিলিপাইন কর্তৃপক্ষ এই হামলার সঙ্গে স্বাধীনতার দাবি জানানো সশস্ত্র সংগঠন মোরো ইসলামিক লিবারেশন ফ্রন্ট (এমআইএলএফ) জড়িত রয়েছে বলে সন্দেহ করছে। সংগঠনটি গত কয়েক দশক ধরে ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চলের স্বাধীনতা দাবি করে আসছে।

এমআইএলএফ-এর সঙ্গে বহুদিন ধরে ফিলিপাইন সরকারের শান্তি আলোচনা চলছে। তবে এমআইএলএফ বহু অংশে বিভক্ত হয়ে পড়েছে। সেই সঙ্গে সংগঠনটির বেশ কয়েকটি অংশ শান্তি আলোচনা চালিয়ে যেতেও অস্বীকৃতি জানিয়েছে। -বিবিসি।