মেইন ম্যেনু

কাল এসএসসিতে বসছে ১৬ লাখ শিক্ষার্থী

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা আগামীকাল সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে। এবারের পরীক্ষায় ১৬ লাখ ৫১ হাজার ৫২৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। এর মধ্যে আট লাখ ৪২ হাজার ৯৩৩ জন ছাত্র এবং আট লাখ আট হাজার ৫৯০ জন ছাত্রী। তত্ত্বীয় পরীক্ষা ১ ফেব্রুয়ারি হতে শুরু হয়ে ৮ মার্চ শেষ হবে এবং ব্যবহারিক পরীক্ষা ৯ মার্চ হতে শুরু হয়ে ১৪ মার্চ শেষ হবে।

গতকাল শনিবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এবার এসএসসি পরীক্ষায় প্রথমে বহুনির্বাচনী ও পরে সৃজনশীল/রচনামূলক (তত্ত্বীয়) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে এবং উভয় পরীক্ষার মধ্যে ১০ মিনিট বিরতি থাকবে। এবারের পরীক্ষায় বাংলা ২য় পত্র এবং ইংরেজি ১ম ও ২য়পত্র ছাড়া সকল বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। গত বছর হতে গণিত ও উচ্চতর গণিত বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এছাড়া গত বছর হতে শারীরিক শিক্ষা, স্বাস্থ্য বিজ্ঞান ও খেলাধূলা নামে একটি নতুন বিষয় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে এবং সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, সেরিব্রাল পালসি জনিত প্রতিবন্ধী এবং যাদের হাত নেই এমন প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থী শ্রুতি লেখক সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। শ্রবণ প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থীদের জন্য অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে। তবে অটিস্টিক এবং ডাউন সিনড্রোম বা সেরিব্রালপালসি আক্রান্ত পরীক্ষার্থীদের ৩০ মিনিট অতিরিক্ত সময় এবং পরীক্ষার কক্ষে তার অভিভাবক/শিক্ষক/সাহায্যকারী নিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, আগে তত্ত্বীয় পরীক্ষা হলে নানা রকম সমস্যা সৃষ্টির সুযোগ থাকে। এটা বন্ধ করতে প্রথমে বহুনির্বাচনী ও পরে সৃজনশীল/রচনামূলক (তত্ত্বীয়) পরীক্ষা গ্রহণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এছাড়া আগামী বছর থেকে এমসিকিউ পরীক্ষায় ১০ নম্বর কমিয়ে দেয়া হবে।