মেইন ম্যেনু

কিশোরগঞ্জে অবৈধ ভাবে জমি দখলের প্রতিবাদে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ ॥ আহত ২

খাদেমুল মোরসালিন শাকীর, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি॥ কিশোরগঞ্জ উপজেলার চাঁদখানা ইউনিয়নে চারমাথা এলাকায় নিরীহ এলাকাবাসীর জমি অবৈধভাবে দখল করে পোল্ট্রি ফার্ম করার প্রতিবাদে শনিবার বিকালে দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে।

প্রায় ৩ মাস পুর্বে চাঁদখানা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান দুলাল নর্থ পোল্ট্রি ফাম’র্র অবকাঠামো করার জন্য এলাকার কতিপয় লোকের জমি ভূয়া দলিলের মাধ্যমে দখল করে। প্রতি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে শুরু করে কিশোরগঞ্জ সাব রেজিষ্টার অফিসে গভীর রাত পর্যন্ত ভূয়া মালিক সাজিয়ে জমির দলিল তৈরী করে নেয় প্রতারক চক্র। প্রকৃতপক্ষে যে জমির উপর বাউন্ডারী করা হচ্ছে সেসব জমির বিষয়ে এখন পর্যন্ত আদালতে মামলা চলছে। যার দাগ নম্বর ৬৮১৬,৬৮১৫,৬৮১৪,৭৫০১ বর্তমান মালিক নজরুল ইসলাম ৫০, এবং ৬৮০৪,৬৮২৫,৬৮৩১,৬৮০৩ দাগ নম্বর জমির মালিক হাবিব ও রশিদগং। সকালে এলাকাবাসীর পক্ষে চরকবন্দ এলাকার সোবহান উদ্দিনের ছেলে ফজু মিয়া (৪০), বাউন্ডারী দিতে নিষেধ করলে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয় মিজানুর রহমান দুলাল, করুনা কান্ত রায়, আব্দুল বারেক ও ছাত্রদলের কিশোরগঞ্জ উপজেলা সভাপতি নজরুল ইসলাম দুলু। এলাকাবাসী এর প্রতিবাদ করলে আওয়ামীলীগ নেতা মিজানুর রহমান দুলালসহ সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্যরা তাদের উপর নির্যাতন চালায় এবং হুমকি প্রদান করে। মিজানুর রহমানের ভারাটিয়া পেটোয়া বাহিনীর মাধ্যমে প্রায় ১মাস থেকে নর্থ পোল্ট্রি ফার্মের বাউন্ডারী দেয়া শুরু করে। বাউন্ডারীর ভিতরে অসংখ্য লোকের জমি থাকায় জমির মালিকেরা বাউন্ডারী না দেয়ার জন্য মিজানুর রহমান দুলালকে জানালে সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্যরা এলাকাবাসীর উপর অতর্কিত ভাবে হামলা চালায়। পরে এলাকাবাসী তাদের প্রতিবাদ করলে সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্যরা ও তাদের ভারাটিয়া বাহিনীর মাধ্যমে চাঁদখানা চরকবন্দ এলাকার বদিয়ার রহমানের ছেলে বেলাল হোসেনের (৪০) বারীঘর ভাংচুর করে চলে যায়। পরে এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ ভাবে আবার নর্থ পোল্ট্রি ফার্মের সংঘবদ্ধ চক্রের সকল সদস্যকে ধাওয়া করলে তারা পোল্ট্রি ফার্ম এলাকা ছেড়ে পালিযে যায় এবং সেখানে সাবেক ইউপি সদস্য সোলেমান আলী (৪৫) ও বাবুল হোসেন (৪০) আহত হয়।

ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। তবে পুলিশ ঘটনাস্থল ত্যাগ করলে আবার যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের সৃষ্টি হতে পারে। এ বিষয়ে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এখন পরিস্থিতি ভাল আছে।