মেইন ম্যেনু

কিশোরগঞ্জে গ্রাম পুলিশের ছত্র ছায়ায় জুয়ার জমজমাট আসর

খাদেমুল মোরসালিন শাকীর, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি॥ কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলী ইউনিয়নের দীঘলটারী গ্রামে গ্রাম পুলিশের পাহাড়ায় চলছে নিয়মিত জমজমাট জুয়ার আসর।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে,বাহাগিলী ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশের সর্দার জাহেদুল ইসলাম ও মানিকুল ইসলাম প্রতিদিন জুয়ার আসর থেকে পাহাড়া দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে জুয়া খেলা বসায়। প্রতিদিন খেলা থেকে দুই গ্রাম পুলিশ প্রায় তিন হাজার করে টাকা নিয়ে খেলা চালিয়ে আসছে। আর এ খেলার কারণে ওই গ্্রামের সাধারণ মানুষ তাদের সন্তানদেরকে নিয়ে ভীষন চিন্তায় রয়েছেন।

নীলফামারী জেলা পুলিশ সুপার জাকির হোসেন খাঁন কমিউনিটি পুলিশিংয়ের এক সভায় বলেছিল নীলফামারী জেলাকে খুব তাড়াতাড়ি শতভাগ জুয়া ও মাদকমুক্ত করা হবে। তার এ ঘোষনার পর উপজেলার গাড়াগ্রাম ইউনিয়নের শ্রম কল্যান পাবলিক পাঠাগার ও মাগুড়া স্বাধীন বাংলা ক্রীড়া চক্রের সদস্যরা অদ্যাবধি নিরলস প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু পুলিশ সুপারের এ ঘোষনাকে উপেক্ষা করে বাহাগিলী ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশের সর্দার জাহেদুল ইসলাম ও গ্রাম পুলিশ মানিকুল ইসলাম প্রতিদিন জনসাধারণকে পাহাড়া দেয়ার পরিবর্তে জুয়ার আসরকে পাহাড়া দিয়ে জুয়া খেলাকে উৎসাহ দিয়ে চলেছেন। গ্রামবাসীর দাবী গ্রাম পুলিশ সর্দার কোন ক্ষমতাবলে জুয়ার থেকে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে জুয়ার অনুমতি দিচ্ছেন।

এ ব্যাপারে বাহাগিলী ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশের সর্দার জাহেদুল ইসলাম বলেন, ওই খেলার জন্য কিশোরগঞ্জ থানার সেকেন্ড অফিসারের সাথে আলোচনা করে তারা খেলা বসায়। সেখানে আমাদের গিয়ে লাভ কি? এর আগের ওসি থাকতে আমরা ৭জনকে আটক করে দিয়েছি। কিন্তু বর্তমান নতুন ওসি আমাদেরকে সহযোগীতা না করলে আমরা কি করবো। কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রশিদের সাথে কথা হলে তিনি জানান,জুয়ারুদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে। এর সাথে সম্পৃক্ত কোন গ্রাম পুলিশের সদস্য জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।