মেইন ম্যেনু

কিশোরগঞ্জে ঢাকাগামী যাত্রীকে মারধর করে টাকাসহ স্বর্ণালংকার ছিনতাই

খাদেমুল মোরসালিন শাকীর, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি॥ কিশোরগঞ্জ উপজেলার মাগুড়া ইউনিয়নের মাগুড়া বাস ষ্ট্যান্ডে ঢাকাগামী যাত্রীকে মারধর করে টাকাসহ স্বর্ণালংকার ছিনতাইয়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
থানায় অভিযোগ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে,শুক্রবার রাত অনুমান সাড়ে ৯টার সময় মাগুড়া বাসষ্ট্যান্ডে ঢাকার উদ্দেশ্যে এসে পৌছলে কাউন্টারের সামনে বসে থাকা বাসষ্ট্যান্ডের মনসুর আলীর ছেলে সহিদুল ইসলাম (৪৫),মজিবর রহমানের ছেলে আলম হোসেন (৪০) সহিদুল ইসলামের ছেলে সুজন (৩০),আল্লী মামুদের ছেলে আহাদুল হক (৪৫), ও মজিবর রহমানের ছেলে ইনছার আলীসহ সংঘবদ্ধ চক্রের কয়েকজন মিলে অনাকাংখিত ভাবে ঢাকাগামী যাত্রী বাদশা মিয়া (৩৫),রাজু মিয়া (২৮),মৌসুমী বেগম (২৫),মিন্নাতারা বেগমকে মারধর করে এবং তাদের সাথে থাকা প্রায় ২০হাজার টাকা,মোবাইল ও স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তাদের চিৎকারে উপস্থিত লোকজন এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় আহতদেরকে কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ব্যাপারে সংঘবদ্ধ চক্রের লোকজনের সাথে মোবাইল ফোনে কয়েকবার চেষ্টা করেও তাদেরকে পাওয়া যায়নি। মাগুড়া শ্রমিক ইউনিয়ন শাখার সভাপতি কবির হোসেনের সাথে কথা হলে তিনি দুঃখ প্রকাশ করে জানান,আমি বিষয়টি শুনেছি তাদেরকে নিয়ে বসে ঘটনার কারণ জানা হবে। সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি জানান,আমি ব্যবসার কারণে ঢাকায় আছি তাদের কারণে পরিবহণ সংগঠনে আমার থাকা হবে না। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন শ্রমিক নেতা বলেন,সড়কের উপর গাড়ি দ্বাড় করিয়ে চাঁদাবাজি করার কারণে কয়েকমাস পূর্বে কিশোরগঞ্জ থানার তৎকালীন ওসি তাকে বেধরক মারধর করেছিল,পরে শ্রমিক ইউনিয়নের লোকজন তাকে পুলিশের কাছ থেকে ছেড়ে নেয়। এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রশিদের সাথে কথা হলে তিনি জানান,অভিযুক্ত ব্যক্তির বিষয়ে আমি শুনেছি এবং আমার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ এসেছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।