মেইন ম্যেনু

কিশোরগঞ্জে সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী অপহরণের পর ধর্ষনের স্বীকার

কিশোরগঞ্জ উপজেলার মুশরুত পানিয়াল পুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে অপহরন করে নিয়ে যাওয়ার পর ধর্ষনের ঘটনায় থানায় বুধবার সন্ধ্যায় চার জনকে আসামী করে একটি মামলা হয়েছে। মামলা নং ০২।

থানা সূত্রে জানা গেছে, গত ১৫ আগষ্ট মুশরুত পানিয়াল পুকুর গ্রামের রবিউল ইসলামের কন্যা ও মুশরুত পানিয়াল পুকুর উচ্চবিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী সন্ধ্যায় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে যায় বাড়ির পাশ্ববর্তী ব্রীজের কাছে। এ সময় বাড়ি মধুপুর গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে মানিক মিয়া (১৮) সহ আরো ৪ জন সহযোগী মিলে মেয়েটিকে মুখে রুমাল চেপে অপহরণ করে। অপহরণ করার পর বিভিন্ন স্থানে রেখে তার সহযোগী সহ তাকে পালাক্রমে ধর্ষন করে। এসময় মেয়েটি গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে গেলে গত ১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মেয়েটির বাড়ির পাশের বাঁশঝাড়ে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

মামলার বাদি মেয়ের মা ছবিতন বেওয়া জানায়, বাঁশঝাড় বাড়ির সন্নীকটে হওয়ায় ঘর থেকে মানুষের কথার আওয়াজ শুনে সেখানে গেলে মেয়েটিকে পড়ে থাকতে দেখে তাকে কিশোরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের ভর্তি করা হয়। পরে মেয়ের মুখে ধর্ষনের কথা শুনে থানায় মামলা করা হয়েছে। মেয়েটিকে বর্তমানে ধর্ষনের আলামত পরীক্ষার জন্য নীলফামারীর আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ থানা ভার প্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মোস্তাফিজার রহমান জানান মেয়েটির মা বাদী হয়ে থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেছে। খুব শিঘ্রই আসামীদের গ্রেফতার করা হবে।