মেইন ম্যেনু

কিশোরগঞ্জে ৩ সন্তানের জননীর আত্মহত্যা

বৃহস্পতিবার সকালে (২০-০৮-২০১৫) কিশোরগঞ্জ উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের ভেড়ভেড়ী আউলাকুটি গ্রামে তিন সন্তানের জননী আত্মহত্যা করেছে।
নিহতের পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে,উপজেলার ভেরভেড়ী আউলাকুটি গ্রামের আকতারুল হকের স্ত্রী তিন সন্তানের জননী রিনা বেগম (৩৫) সকালে গলায় ফাস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে শশুর বাড়ীতে ফোন করে জানায় তার স্বামী। পরে রিনা বেগমের বাবার বাড়ীর লোকজন সেই বাড়ীতে গিয়ে দেখে রিনা বেগমের গলায় চিহ্ন। তারপর রিনার বাবা একাব্বর হোসেন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু সায়েম লিটনকে জানায়। কিন্তু ইউনিয়ন চেয়ারম্যান থানা পুলিশকে না জানিয়ে বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মিমাংসা করার চেষ্ঠা করে ব্যর্থ হয়। দুপুর ২টার সময় রিনা বেগমের বাবা থানা পুলিশকে খবর দিলে থানা পুলিশ রিনা বেগমের স্বামী আকতারুল হককে আটক করে এবং লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। রিনা বেগমের বাবা একাব্বর হোসেন জানান,আমার জামাই আকতারুল হক দীর্ঘদিন থেকে পার্শ্ববর্তী এলাকার একটি মেয়ের সাথে পরকীয়া করে আসছিল। কিন্তু আমার মেয়ে তার প্রতিবাদ করায় আকতারুল আমার মেয়েকে মেরে ফেলেছে। তিনি আরও জানান,গত ৭-৮মাস আগেও রিনা বেগমকে তার স্বামী মার ডাং করে হাত ভেঙ্গে দিয়েছিল আমরা তার ৩টি সন্তানের কারণে আকতারুলের বিরুদ্ধে কোন আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করিনি। এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান’র সাথে কথা হলে তিনি জানান,পারিবারিক কলহের জের ধরে এই আত্মহত্যা। সাংবাদিকরা হত্যার বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তিনি জানান,হত্যা না আত্মহত্যা পোষ্ট মর্টেম রিপোর্টের পড়ে জানা যাবে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।