মেইন ম্যেনু

কি করে বুঝবেন ফ্রিজের ডিমটি নষ্ট কি না?

শাক-সবজি প্রতিদিনেরটা প্রায় প্রতিদিন কিনে নেওয়া হলেও ডিম, পেঁয়াজ কিংবা তেলের মতন জিনিসগুলো সাধারণত মাসের শুরুতেই কিনে রাখেন সবাই। আর বাজার থেকে আসতে না আসতেই ডিমগুলোকে ধুয়ে-মুছে চালান করে দেওয়া হয় ফ্রিজে। মনে করা হয় এভাবে অনেকদিন ভালো থাকবে ডিম। হ্যাঁ! ফ্রিজে একটু বেশিদিন ভালো তো থাকবেই খাবার। কিন্তু ডিমের বেলায় সেটা ঠিক কতদিন? ফ্রিজে রাখবার পরেও অনেকটা সময় পার হয়ে গেলে ডিম হয়ে যায় খাওয়ার অনুপযুক্ত। আসুন জেনে নিই নষ্ট বা খাওয়ার অনুপযোগী ডিম ও এর আনুষঙ্গিক কিছু ব্যাপারকে।

১. ফ্রিজে কতদিন ডিম ভালো থাকে?

একটা সময় পর ফ্রিজে রাখা যেকোন ডিমই নষ্ট হয়ে বা খাওয়ার অনুপযোগী হয়ে যায়। সাধারনত ৩০ দিনের জন্যে একটা ডিম ভালো থাকে ফ্রিজে। কোন কোন ক্ষেত্রে সেটা ৩ থেকে ৪ সপ্তাহ হতে পারে। কিন্তু foodsafety.gov এর মতে ফ্রিজে একটি কাঁচা ডিম ৩ থেকে ৫ সপ্তাহ পর্যন্ত রাখা যায়। এরপর আর সেটা খাওয়ার উপযোগী থাকেনা।

২. কি করে বুঝবেন ডিম নষ্ট কিনা?

ফ্রিজে ডিম রেখে দিলে নিজ থেকেই একটা সময় পর ভেতরের তরল অংশটুকু শুকিয়ে খাওয়ার অনুপযোগী হয়ে ওঠে সেটি। আর তাই এর ওজন হয়ে যায় অনেক কম। ডিম নষ্ট হয়েছে কি হয়নি সেটা জানতে তাই ফ্রিজের ডিমটিকে পানির ভেতরে ডুবিয়ে রাখুন। সেটি ভেসে উঠলে বুঝতে হবে ডিমটি নষ্ট হয়ে গিয়েছে। আর ঠিক থাকলে এটি পানিতে ডুবে যাবে।

৩. কি করবেন পুরনো ডিম দিয়ে?

সাধারনত পুরনো ডিম খাওয়াটা ঠিক না হলেও যদি সেটা নষ্ট না হয়ে যায় সেক্ষেত্রে ডিম দরকার পড়ে কিংবা খানিকটা লাগে এমন রান্নায় সেটিকে ব্যবহার করুন। অন্যথায় ডিমের আকৃতি বোঝা যায় এমন খাবারে ডিম ব্যবহার করলে সেটি খাবারটিকে আর এর সৌন্দর্যকে নষ্ট করে দেবে।

৪. ডিমকে বেশিদিন ফ্রিজে ভালো রাখার উপায় কি?

ফ্রিজে ডিমকে বেশিদিন সতেজ রাখতে চাইলে একটি প্যাকেটে ডিমগুলোকে নিয়ে ফ্রিজের ভেতরের দিকের বেশি ঠান্ডা কোন স্থানে রাখুন। প্রতিটি ফ্রিজেই দরজা খোলার জায়গাটিতে ডিম রাখার জায়গা থাকে। কিন্তু সেখানে ফ্রিজের দরজা বারবার খোলা আর বন্ধ করবার জন্যে ঠান্ডার তারতম্য হয়। ফলে ডিম তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায়। তাই এটা প্রতিরোধ করার জন্যে ডিমকে ফ্রিজের ভেতরের দিকে রাখুন।

তথ্যসূত্র:

How long do eggs stay good in the refrigerator?- www.sheknows.com

How to Tell If an Egg Is Bad- www.safebee.com

How to Tell if an Egg is Bad- www.wikihow.com



« (পূর্বের সংবাদ)
(পরের সংবাদ) »