মেইন ম্যেনু

কীভাবে বুঝবেন ভালোবাসার পুরুষটি পাশে থাকবে আজীবন?

এমন কিছু পুরুষ আছেন যারা ভালো-মন্দ কোন পরিস্থিতিতেই সঙ্গীকে একা ফেলে জান না, তাঁরা সব সময়ই পাশে থাকেন। আসলে যখন কোন পুরুষ তার জীবন সঙ্গী হিসেবে এমন কাউকে খুঁজে পায় যে সারাজীবন তার পাশে থাকবে, তাহলে সে নিশ্চিতভাবেই তাকে কাছে রাখার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করেন। আসুন জেনে নেই এমন কিছু লক্ষণ যা দেখে আপনি বুঝতে পারবেন যে এই মানুষটি আপনাকে ছেড়ে যাবেনা কখোনো।

১। তিনি আপনার ও আপনাদের সম্পর্কের সাথে প্রতিশ্রুতি বদ্ধ

ভালো সময়ে একসাথে থাকাটা খুব সহজ। কঠিন সময় যখন আসে তখন একত্রে থাকতে পারাটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সামান্য যুদ্ধেই প্রকৃত পুরুষের ভালোবাসায় ঘাটতি পড়েনা। যখন তার সঙ্গী খারাপ মুডে থাকে তখন তা খুব গুরুত্ব সহকারে নেয় না। তারা তাদের সম্পর্কের গুরুত্ব বুঝতে পারে এবং এই সম্পর্ককে টিকিয়ে রাখার পথে কোন বাঁধাকেই টিকতে দেননা।

২। তিনি সমস্যাকে এড়িয়ে যান না

যখন পরিস্থিতি কঠিন হয়ে পড়ে তখন তিনি পরাজিত হন না এবং তার অনুভূতির কথাও বলেন। যদি তাদের সম্পর্কের ক্ষেত্রে কোন বিষয় তাকে বিরক্ত করে তাহলে সেই বিষয়টি তিনি সম্মানের সাথেই সামনে নিয়ে আসেন। তিনি বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন এবং সমাধানের উপায় খুঁজে বের করার চেষ্টা করেন।

৩। সামান্য কোন বিষয়ের প্রতিও তিনি মনযোগী

একা থাকলে বাসন কোসন না ধুয়ে ফেলে রাখা, ময়লায় ঝুড়িটা ভর্তি হয়ে যাওয়া এমনকি অথবা ঘরে খাওয়ার জন্য তেমন কিছু না থাকা ইত্যাদি বিষয় গুলোকে তিনি হয়তো তেমন কোন গুরুত্ব দিতেন না। কিন্তু তিনি জানেন যে আপনি এই বিষয় গুলোর প্রতি গুরুত্ব দেন তাই তিনি বাড়ি ঘর পরিষ্কার রাখেন এবং ফ্রিজেও খাবার সংরক্ষণ করেন। আপনাদের পছন্দের ছবিটি তিনি কখনো একা দেখেন না।

৪। আপনার নিজের সম্পর্কে আপনি ভালো বোধ করুন তিনি এটাই চান

তিনি মনে করেন আপনি সুন্দর। আপনি যে সুন্দর সেটা বোঝানোর জন্য তিনি অনেক কিছু করেন। আপনার কোন একটি জিনিস হয়তো সুন্দরনা কিন্তু তিনি সেটাকেও সুন্দর করে আপনার সামনে উপস্থাপন করবেন যাতে আপনার কাছেও সুন্দর মনে হয়।

৫। তিনি আপনার কাছে কোন গোপনীয়তা রাখেন না

সত্য যতই কদর্য হোকনা কেন তিনি সেটা আপনার কাছ থেকে গোপন করবেন না। আপনি তার কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বলেই তিনি নিজের সব কথাই আপনাকে বলেন। তিনি পরিচ্ছন্ন ও হৃদয়বান মানুষ তাই তিনি আপনার কাছ থেকে কোন কিছুই লুকান না। তিনি সম্পর্ক তৈরি করেন বিশ্বাসের সাথে এবং আপনার কাছ থেকেও সেই রকমই আশা করেন।

এছাড়াও তিনি তার নিজের ভুলকে বড় করে দেখেন এবং আপনার ভুলে হাসেন, আপনার যেকোন সমস্যাকে তিনি নিজের সমস্যা বলে মনে করেন, তিনি আপনার সাথে ছল চাতুরী করেননা, তিনি আপনাকে খুব ভালোভাবে বুঝতে পারেন।