মেইন ম্যেনু

কুকুরের ‍দুধ পান করে বেঁচে আছে মুহিত

অর্থের অভাবে জন্মের ৪ বছর পর থেকে নিয়মিতই কুকুরের দুধ পান করে আসছে শিশুটি। ভারতের ধনবাদ এলাকার ওই শিশুটির নাম মুহিত (১০)।জন্মের পর দুধ কিনে খাওয়ানোর চেষ্টা চালালেও মুহিতের বাবা-মা এ ব্যাপারে অকৃতকার্য হয়। একটা সময় কুকুরের দুগ্ধ পানে অভ্যস্ত হয়ে পড়ে মুহিত। কুকুরের দুধ পান করা মুহিতকে নিয়ে বেশ চিন্তিত তারা। এ ভয়ে স্কুলেই পাঠানো হয় না মুহিতকে।

মুহিতের বাবা সুবেদার সিংহ একজন ফলের জুস বিক্রেতা। রাস্তায় দাঁড়িয়ে তিনি ফলের জুস বিক্রি করেন। তার মা পিংকি কুমারি অন্যের বাড়িতে কাজ করেন।

পিংকি জানান, একদিন মুহিত কুকুরের সঙ্গে উঠানে খেলা করছিল। একটা সময় ছেলেটি কুকুরের দুধ পান করা শুরু করে। তারপর থেকে কুকুরটিও মুহিতকে পছন্দ করতে শুরু করে। মুহিত যখনই দুধ পান করতে চাইত, তখনই দেয়া হতো দুধ।

অর্থাভাবে ছেলেকে ভাল ডাক্তার দেখাতে পারে না তারা। অসহায় এ মা জানান, ‘সপ্তাহ দুই আগে ছেলেকে অন্য কলোনির কুকুর কামড়ে দিয়েছিল। অন্য এলাকার কুকুরের দুধ পান করতে গেলে সেটি মুহিতকে কামড় দেয়। এখন মুহিতকে ভেক্সিন দেয়া হয়েছে।

মুহিতের এ ধরনের অভ্যাস সম্পর্কে সেন্ট্রাল হাসপাতালের সিনিয়র ডাক্তার ডি কে সিংহ টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে বলেন, ‘কুকুরের দুধ মানুষের জন্য ক্ষতিকারক নয়। তবে জলাতংকের জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকে।’
মুহিতের বাবা-মা জানান, কুকুরের দুধ মুহিত পান করে বলে এতে আমাদের কোনো সমস্যা নেই। তবে প্রতিবেশিরা বিষয়টি নিয়ে বেশ বিরক্ত। তাই ছেলেকে স্কুলেও যেতে দেয় না।