মেইন ম্যেনু

কুকুর ছানা যেভাবে জীবন যুদ্ধের প্রতীক

চীনের তিয়ানজিনে রাসায়নিক বিস্ফোরণের ধ্বংসাবশেষের মধ্যে ৭২ ঘণ্টা পর একটি কুকুর ছানা জীবিত পাওয়া গেছে। কুকুর ছানাটি একেবারে অক্ষত আছে বলে জানিয়েছে উদ্ধারকর্মীরা। সেটি এখন চীনের মানুষদের জন্য জীবন যুদ্ধের এক প্রতীক হয়ে উঠেছে।

চীনের সোশাল মিডিয়াতে এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হচ্ছে। হাজার হাজার কমেন্টে ভরে গেছে চীনা সোশাল মিডিয়ার সাইটগুলো। কুকুর ছানাটির ছবিও শেয়ার হচ্ছে ব্যাপক।

ভয়াবহ দুর্ঘটনায় বহু মানুষের মৃত্যুর খবরের পর কালো রঙের কুকুর ছানাটির আবির্ভাবকে এক আশার আলো বলে দেখছেন অনেকে। তেমনটাই লিখেছেন জুন বাও নামের একজন।

অনেকে বিষয়টিকে অলৌকিক বলেও বর্ণনা করেছেন। কুকুর ছানাটি তার উদ্ধারকারীদের কাছ থেকে একদমই সরতে চাইছে না।

গত বুধবার রাতে কয়েক সেকেন্ডের ব্যবধানে দুটি শক্তিশালী বিস্ফোরণ ঘটে তিয়ানজিন শহরের শিল্প এলাকায়। যার শকওয়েভ পৌঁছে গিয়েছিল কয়েক কিলোমিটার দুরে।

যেখানে গাড়ির কারখানা, বিমান সংযোজন কারখানা, বিভিন্ন ধরনের উৎপাদন শিল্প প্রতিষ্ঠান এবং গবেষণা সংস্থার দপ্তর ছিল।

ভয়াবহ ঐ বিস্ফোরণে এখনো পর্যন্ত ১১৪ জনের মৃত্যুর খবর জানা গেছে। ৭০ জনে মতো এখনো নিখোঁজ রয়েছে। আর আহত ৭০০ জন হাসপাতালে রয়েছেন। এছাড়া প্রায় ১৭ হাজার ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সূত্র: বিবিসি