মেইন ম্যেনু

কুড়িগ্রামে জলাবদ্ধতা দূরীকরণে সোয়া কোটি টাকা ব্যয়ে ১৮কি.মি. খাল খনন

কে,এম, গোলাম রব্বানী, কুড়িগ্রাম থেকে: কুড়িগ্রাম জেলার তিন উপজেলার তিস্তা-ধরলা নদীর সাথে সংযোগ ক্যানেল (খাল) খনন কাজ শুরু হয়েছে। ১৮ কি.মি. এ খাল পুন খনন কাজ সম্পন্ন হলে ১০টি ইউনিয়নের ৩০ হাজার হেক্টর কৃষি জমি সেচের আওতায় আসবে। পাশাপাশি প্রায় এক হাজার পুকুর মাছ চাষের আওতায় আনা সম্ভব হবে। একই সঙ্গে এ অঞ্চলের জলাবদ্ধতা দূর হলে, উপকৃত হবে প্রায় লক্ষাধিক কৃষক ও মৎস্যজীবি।

ইন্টেগ্রেটেড এগ্রিকালচারাল প্রোডাক্টটিভিটি প্রোজেক্ট’র উদ্যোগে ১৮ কি.মি. দেউলা বিলের পুন খনন কাজ শুরু হয়েছে। পূণ খনন কাজে ব্যয় হবে ১ কোটি ২০ লাখ টাকা। রাজারহাট উপজেলার তিস্তা নদীর সিন্দুরমতি থেকে উলিপুর উপজেলার দূর্গাপুর ও পান্ডুল হয়ে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার মোগলবাসার ধরলা নদী পর্যন্ত সংযোগ খনন কাজ শেষ হবে। শনিবার এই কাজের উদ্বোধন করেন,আইএপিপি’র(ইন্টেগ্রেটেড এগ্রিকালচারাল প্রোডাক্টটিভিটি) পরিচালক আব্দুল কাদের।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মোহাম্মদ আলী, ড. মো.শাহাবুদ্দিন, রাজারহাট উপজেলা পরিষদ চেয়াম্যান আবুল হাশেম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, জেলা সমন্বকারী সিরাজুল ইসলাম, বিএডিসি ক্ষুদ্র সেচ নির্বাহী প্রকৌশলী হোসাইন মোহাম্মদ আলতাব, উপজেলা কুষি কর্মকর্তা ষষ্টি চন্দ্র রায়, প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা সাইদুর রহমান ্প্রমুখ।

রাজারহাট উপজেলার সিন্দুরমতি ব্রিজ হতে রাজারহাট সদর, ঘড়িয়াল ডাঙ্গা,বিদ্যানন্দ,চাকিরপশার,ওমর মজিদ, উলিপুর উপজেলার দূর্গাপুর,পান্ডুল এবং কুড়িগ্রাম সদরের বেলগাছা ও মোগলবাসা ইউনিয়ন পর্যন্ত এই খনন কাজ মে মাসে শেষ করা হবে।