মেইন ম্যেনু

কুড়িগ্রাম সদরে বিএনপি : রাজারহাটে আ’লীগের জয়জয়কার

কুড়িগ্রামে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহন সম্পন্ন

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : কুড়িগ্রাম সদর, রাজারহাট ও ফুলবাড়ী উপজেলার ১৮ ইউনিয়নে শনিবার অনুষ্ঠিতব্য চতুর্থ দফা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তিন উপজেলার ১৮টি ইউনিয়নের মধ্যে আওয়ামীলীগ ৯, বিএনপি ৭ ও স্বতন্ত্র হিসেবে ২ জন প্রার্থী বিজয়ী হয়েছে। বিচ্ছিন্ন দুএকটি ঘটনা ছাড়া এবারে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহন সম্পন্ন হয়।

এরমধ্যে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার ৮ ইউনিয়নের মধ্যে বিএনপি ৬ ও আ’লীগ ২টিতে বিজয়ী হয়। অপরদিকে রাজারহাট উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে ১টিতে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীসহ সবগুলিতেই তারা বিজয়ী হয়। ফুলবাড়ীতে ৩টি ইউনিয়নের মধ্যে ১টিতে আওয়ামীলীগ, ১টিতে বিএনপি এবং অপরটিতে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বিজয়ী হয়েছে।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার কাঁঠালবাড়ী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের আমান উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু ও ঘোগাদহ ইউনিয়নে শাহ আলম নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন। এছাড়া বিএনপি থেকে বেলগাছায় বর্তমান চেয়ারম্যান মাহবুর রহমান, মোগলবাসায় নুরজামাল বাবলু, যাত্রাপুরে আইয়ুব আলী সরকার, পাঁচগাছিতে দেলোয়ার হোসেন, ভোগডাঙ্গায় বর্তমান চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান ও হলোখানায় বর্তমান চেয়ারম্যান উমর ফারুক ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন।

রাজারহাট উপজেলার ছিনাই ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী নুরুজ্জামান বুলু চশমা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন। এছাড়াও রাজারহাট সদরে এনামুল হক, বিদ্যানন্দে তাইজুল ইসলাম, নাজিমখানে আব্দুল মালেক পাটোয়ারী, উমর মজিদে মোহাম্মদ আলী সরদার, ঘড়িয়ালডাঙ্গায় রবীন্দ্রনাথ কর্মকার ও চাকিরপশার ইউনিয়নে জাহিদ সোহরাওয়ার্দী বাপ্পী নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন।

ফুলবাড়ী উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নে বিএনপি প্রার্থী মুসাদ্দের আলী সুমন ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে, শিমুলবাড়ীতে আওয়ামীলীগের এজাহার আলী নৌকা প্রতীক নিয়ে এবং বড়ভিটা ইউনিয়নে আ’লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী খয়বর আলী মটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন।

কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ তবারক উল্লাহ জানান, ছোটখাটো বিচ্ছিন্ন ঘটনা বাদ দিলে জেলার ৩টি উপজেলার ১৮টি ইউনিয়নে ২১১টি কেন্দ্রে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহন সম্পন্ন হয়। ভোট গ্রহনের ব্যাপারে কোন রাজনৈতিক দল কিংবা ব্যক্তির পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি।
জেলা নির্বাচন অফিসার দেলোয়ার হোসেন জানান, সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষভাবে ভোটগ্রহন সম্পন্ন হয়েছে।