মেইন ম্যেনু

কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক নিয়ে সতর্ক বিএনপি

ভারতের কোনো প্রতিনিধি ছাড়াই ঢাকায় নিযুক্ত বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক করেছেন বিএনপি নেতারা। তবে এ বৈঠক নিয়ে সতর্ক অবস্থায় রয়েছে দলটি। বৈঠক শেষে এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শীর্ষ নেতারা গণমাধ্যমের প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে যান।

গতকাল থেকেই এ বৈঠকের খবর থাকলেও এ বিষয়ে বিএনপির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে গণমাধ্যমকে কিছুই জানানো হয়নি। বৈঠক শেষে বিএনপি নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস ও উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব হোসেন একে একে চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয় থেকে বেরিয়ে এলেও গণমাধমের সঙ্গে কথা বলেননি।

এক পর্যায়ে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কার্যালয় থেকে বেরিয়ে বাহিরের সড়কে আসলে অপেক্ষমান সাংবাদিকরা বৈঠকের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ইট ওয়াজ রুটিং মিটিং।’

কিছুক্ষণ পর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন।

সেখানে তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘সরকার বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের উপর দমন নিপীড়ন অব্যাহত রেখেছে।’ এসবের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি।

সরকার জাতীয় ঐক্যে ভয় পায় এমন মন্তব্য করে জঙ্গিবাদে সরকারের মদদ রয়েছে কিনা এ ব্যাপারে সন্দেহ পোষণ করেন রিজভী।

সংবাদ সমেলনে কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটা আমার বিষয় না।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বৈঠকটি বিকেল সোয়া ৪টায় শুরু হয়ে শেষ হয় বিকেল সোয়া ৫টায়।

বৈঠকে কূটনৈতিকদের মধ্যে ইন্দোনেশিয়া, জার্মানি, অষ্টেলিয়া, স্পেন, ইরান, সিঙ্গাপুর, সৌদি আরব, পাকিস্তান, যুক্তরাজ্য, নরওয়ে, নেপাল, আমেরিকা ও জাতিসংঘের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

এছাড়া বিএনপির পক্ষ থেকে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য বারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, মির্জা আব্বাস, উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব হোসেন, সাবিহ উদ্দিন আহমেদ ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন প্রমুখ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।