মেইন ম্যেনু

কেন্দ্রীয় কমিটিতে রাজশাহীর ছয় নতুন মুখসহ ১৬ জনের নাম, ছিটকে পড়লেন নাদিম

সরকার দুলাল মাহবুব, রাজশাহী থেকে : বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পেয়েছেন রাজশাহীর ১৬ নেতা। এর মধ্যে ছয়জন নতুন মুখ। এরা হলেন, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন, জেলার সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট কামরুল মনির, জেলার সহ-সভাপতি সৈয়দ খালেদ হোসেন চৌধুরী পাহিন, সাবেক ছাত্র নেতা সাইফুল ইসলাম মার্শাল, দেবাশিষ রায় মুধু ও রমেশ চন্দ্র।

তবে কেন্দ্রীয় কমিটির পদে থেকে ছিটকে পড়েছেন রাজশাহী-৫ আসনের সাবেক সাংসদ নাদিম মোস্তফা। তিনি গত কমিটির বিশেষ সম্পাদক ছিলেন। নতুন কমিটিতে তার নাম রয়েছে জাতীয় নির্বাহী কমিটির নতুন সদস্যের তালিকায় ৮৭ নম্বরে।

বিএনপির নতুন কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইজ চেয়ারম্যানের পদ পেয়েছেন সাবেক মন্ত্রী ও রাজশাহী-১ আসনের সাবেক সাংসদ ব্যারিষ্টার আমিনুল হক। ৩৫ জন ভাইজ চেয়ারম্যানের তালিকায় তার নাম রয়েছেন ২৮ নম্বরে। এর আগের কমিটিতে তিনি ছিলেন সদস্য পদে। এছাড়াও সদস্য থেকে বন ও পরিবেশ সম্পাদকের পদ পেয়েছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র (সাময়িক বরখাস্ত) মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।

নতুন কমিটির উপদেষ্টা কাউন্সিলের ৭৩ জন সদস্যের তালিকায় নাম রয়েছে রাজশাহীর তিন নেতার। সাবেক মন্ত্রী ও রাজশাহী-৬ আসনের সাবেক সাংসদ কবির হোসেন ৭ নম্বর সদস্য, রাজশাহীর সাবেক মেয়র ও সদর আসনের সাবেক সাংসদ মিজানুর রহমান মিনু ১৪ নম্বর ও এ্যাডভোকেট কামরুল মনির ৬২ নম্বর সদস্য হয়েছেন। এদের মধ্যে গত কমিটিতে কবির হোসেন মুক্তিযুদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক এবং মিজানুর রহমান মিনু যুগ্ম মহাসচিব ছিলেন। মিজানুর রহমান মিনু বর্তমানে নগর বিএনপির সভাপতি। আর কামরুল মনির বর্তমানে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রয়েছেন। প্রথম বারেরমত এবার কামরুল মনির কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পেয়েছেন।

নতুন কমিটিতে রাজশাহী বিভাগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক পদ পেয়েছেন সৈয়দ শাহীন শওকত। তিনি গত কমিটির সদস্য ছিলেন। বর্তমানে তিনি জেলা বিএনপির উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য। এছাড়াও নতুন কমিটিতে বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদকের পদ পেয়েছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র (সাময়িক বরখাস্ত) ও নগর বিএনপির সহসভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।

গত কমিটির সদস্য ছিলেন তিনি। আর সহ-ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সম্পাদকের পদ পেয়েছেন নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন। প্রথমবারের মত তিনি কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পেয়েছেন। এছাড়াও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সহ-সম্পদকের পদ পেয়েছেন জেলার সহসভাপতি ইঞ্জিনিয়ার সৈয়দ খালেদ হোসেন চৌধুরী পাহিন। তিনিও প্রথমবারের মত কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পেয়েছেন।

এছাড়াও প্রথমবারের মত কেন্দ্রীয় কমিটিতে সদস্য পদ পেয়েছেন সাবেক ছাত্র নেতা সাইফুল ইসলাম মার্শাল, দেবাশিষ রায় মুধু ও রমেশ দপ্ত। এছাড়াও গত কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম দুলাল, মতিউর রহমান মুন্টু, কাজী হেনা ও চারঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সাঈদ চাঁদ এবারো সদস্য পদ পেয়েছেন কেন্দ্রীয় কমিটির।