মেইন ম্যেনু

কোথা থেকে উৎপত্তি হল চা?

প্রতিটি খাবার কোন না কোন সময় প্রথম উৎপাদন করা হয়েছিল। চায়ের আবিষ্কারও কখনও না কখনও অবশ্যই হয়েছে। কেউ তো অবশ্যই চিন্তা করেছিল যে, গাছের পাতার স্বাদ কতটা মজার হতে পারে। তবে চা আবিষ্কারের পেছনেও রয়েছে মজাদার ঘটনা।

চাইনিজ সম্রাট শেন নাগের গরম পানির পাত্রে একদিন চা পাতা পড়ে যায়। এরপর মনের অজান্তে তিনি সেই পানি পান করে। এরপর বছরের পর বছর এই চা পাতার চাহিদা শুধু বেড়েই চলেছে। পানির পরে মানুষ সবচেয়ে বেশি চা পান করে।

প্যাকেটজাত চা পাতা তৈরির পেছনেও মজাদার কাহিনী রয়েছে। ১৯০৮ সালে থমাস সুলিভান ক্রেতার নিকট চা পাতা বিক্রয় করেছিলেন। সেদিন তিনি ক্রেতার সুবিধার্থে একটি ব্যাগে করে চা-পাতা দিয়েছিলেন। ক্রেতা সেই ছোট্ট ব্যাগ সহ পানিয়ে ভিজিয়ে চা তৈরি করে পান করেন। এটি পরবর্তীতে টি-ব্যাগে রূপান্তরিত হয়।

এছাড়াও চা সম্পর্কে আরও কিছু মজাদার তথ্য রয়েছে-

১. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যে চা কালো চা নামে পরিচিত, আরেকদিকে সেই চা চীনে লাল চা হিসেবে পরিণত।

২. তিব্বতের স্থানীয় লোকেরা চায়ের সাথে মাখন, দুধ ও লবণ মিশিয়ে পান করেন।

৩. ফরাসি, কোরিয়ান ও ভিয়েতনামীরা দুধ ছাড়া চা পান করতে পছন্দ করে।

৪. ইরানীরা চা পান করার সময় তাদের দাঁতের নিচে চিনি জমা করে রাখেন। এরপর চা চুমুক দিয়ে পান করেন। এটি তাদের একটি ঐতিহ্য।

৫. থাইল্যান্ডে, শুধুমাত্র চিনি নয় সাথে দুধও আগে মুখে জমিয়ে রাখা হয়। এতে চায়ের মিষ্টি স্বাদ বৃদ্ধি পায়।-সুত্র: টাইম্‌স অফ ইন্ডিয়া।



« (পূর্বের সংবাদ)