মেইন ম্যেনু

কোন প্রশ্নগুলো কখনোই প্রেমিককে করবেন না?

ছেলেরা সাধারণত প্রশ্নের সম্মুখীন হতে খুবই অপছন্দ করে। কিছু প্রশ্নে তারা অস্বস্তি অনুভব করে এবং মাঝেমধ্যে বিরক্তও হয়। কিন্তু তাই বলে তাকে প্রশ্নই করা যাবে না? তা নয়, কিন্তু একটু বুঝেশুনে করলে এমন কী বা ক্ষতি! কিছু বিষয় এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। আর খুব জানতে ইচ্ছা হলে বুদ্ধি খাটিয়ে একটু-আধটু ঘুরিয়ে জিজ্ঞাসা করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে প্রেমিক যদি বন্ধুভাবাপন্ন স্বভাবের হয়ে থাকে, তাহলে হাসিমুখেই আপনাকে জবাব দেবে। আর যদি গুরুগম্ভীর স্বভাবের হয়, তাহলে তো একটু সমস্যা!

যে প্রশ্নগুলো ছেলেরা পছন্দ করে না—তার একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে বোল্ডস্কাই ওয়েবসাইটের লাইফস্টাইল বিভাগে। চলুন, একনজরে দেখে নেওয়া যাক কোন প্রশ্নগুলো প্রেমিককে না করাই ভালো :

তোমার সাবেক প্রেমিকা কি খুব সুন্দরী ছিল?

সব ধরনের কথা প্রেমিকের সঙ্গে বললেও সাবেক প্রেমিকাকে নিয়ে কথা না বলাই ভালো। আর এ ধরনের প্রশ্ন তো একেবারেই না।

তোমার বেতন কত?

সম্পর্ক গাঢ় হওয়ার আগেই যদি তার বেতন সম্বন্ধে আপনি জানতে চান, তাহলে সে অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে পড়তে পারে। কারণ এ প্রশ্ন শুনলে সে ভাববে, আপনি তার অর্থনৈতিক অবস্থার ওপর ভিত্তি করে সম্পর্কের ভবিষ্যৎ চিন্তা করছেন।

আমি কি তোমার সাবেক প্রেমিকার থেকে বেশি সুন্দরী?

এই প্রশ্নটার মানে আপনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। প্রত্যেক ছেলের কাছে সৌন্দর্যের মানে আলাদা। আর সে কখনোই অন্য কোনো মেয়ের সঙ্গে আপনার তুলনা করতে চাইবে না। যেহেতু আপনার সঙ্গেই সে সম্পর্কে জড়িয়েছে, এর মানে আপনার মধ্যে নিশ্চয়ই বিশেষ কিছু রয়েছে।

তোমার মা কি ভালো মানুষ?

সবাই তাঁর মাকে ভালোবাসে। সে কি কখনো মাকে খারাপ বলবে? এ ধরনের প্রশ্নের কোনো মানে আছে কী?

ভবিষ্যতের অর্থনৈতিক বিষয়ে তোমার কোনো পরিকল্পনা আছে?

যাকে ভালোবাসেন, তার সঙ্গে এত হিসাব-নিকাশের প্রয়োজন আছে কি? এমনটা হলে কারো সঙ্গে প্রেম না করে পরিবারকেই বলুন, আপনার জন্য বিয়ের পাত্র ঠিক করতে।

আমাদের জন্য কবে নতুন বাসা কেনার পরিকল্পনা করেছ?

এ প্রশ্ন শুনলে সে ভাববে, আপনি তাকে পরিবার থেকে আলাদা করতে চাইছেন। সে অনেকটা দ্বিধায় পড়ে যাবে। এ ধরনের প্রশ্নের কারণে অনেক সময় সম্পর্ক ভেঙেও যায়।

আমি কি মোটা হয়ে যাচ্ছি?

আপনি জিরো ফিগারের থাকলেও সে আপনাকে ভালোবাসবে আর মোটা হলেও আপনার প্রতি তার ভালোবাসার ঘাটতি হবে না। তাই অযথা এ প্রশ্ন করবেন না।

তুমি কি সাবেক প্রেমিকার কথা ভাবছ?

যদি প্রেমিককে চুপচাপ থাকতে দেখে মনে করেন, সে তার সাবেক প্রেমিকার কথা ভাবছে, তাহলে এর থেকে আর বোকামি কিছুই হতে পারে না। তাই এমন প্রশ্ন ভুলেও করবেন না।

বিয়ের পর কি তুমি তোমার বেতন আমাকে দেবে?

এই প্রশ্ন শুনলে সে আপনাকে বিয়ে নাও করতে পারে! আর যার একটু বুদ্ধি আছে, সে হয়তো এমন প্রশ্ন করবেও না, কী বলেন?

আমি যদি দেখতে খারাপ হতাম, তাহলে কি তুমি আমাকে ভালোবাসতে?

এমন প্রশ্ন কেন করবেন, যার কোনো ভিত্তি নেই? এ প্রশ্নের উত্তর কী হলে আপনি খুশি হতেন বলুন? ছেলেটি যে আপনাকে খুশি করার জন্য উত্তর দেবে না, এর কোনো গ্যারান্টি আছে? তাই সামান্য খুশি হওয়ার জন্য এ ধরনের প্রশ্ন না করাই ভালো।