মেইন ম্যেনু

কোহলিকে ভালোবেসে কারাদণ্ড পেলেন পাকিস্তানি এক ভক্ত

কোহলিকে ‘ভালোবেসে’ নিজ দেশে ভারতীয় পতাকা ওড়ানোর দায়ে কমপক্ষে ১০ বছরের জেল হতে পারে সেই পাকিস্তানি কোহলি-ভক্তের। ২৬ জানুয়ারি তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার ২২ বছর বয়সী সেই ক্রিকেট পাগল উমর দারাজকে বিচার বিভাগীয় রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

পেশায় দর্জি এই তরুণকে দেশটির সেকশন ১২৩-এ শাস্তি দেয়ার তোড়জোড় চলছে। দেশের সার্বভৌমত্বের ক্ষতি করে এমন অপরাধের শাস্তি কমপক্ষে ১০ বছরের জেলের বিধান রয়েছে পাকিস্তানে।

লাহোর থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে পাঞ্জাবের ওকারা জেলায় বাস করেন দারাজ। ২৬ জানুয়ারি ভারতের প্রজাতান্ত্রিক দিবসে এমন অপরাধ করায় দারাজকে গ্রেপ্তার করে পাকিস্তানি পুলিশ। ওই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে কোহলির দারুণ ব্যাটিংয়ে জয় পায় ভারত।

এ ব্যাপারে মুহাম্মদ জামিল নামের এক পাকিস্তানি পুলিশ জানান, আমরা উমর দারাজের বাসায় যাই। আর তার ছাদে ভারতীয় পতাকা দেখতে পাই। তারপর দারাজকে গ্রেপ্তার করি এবং তার বিরুদ্ধে পাবলিক অর্ডার রক্ষণাবেক্ষণের ধারায় মামলা করি। একই দিন তাকে কোর্টে ও পুলিশ হাজতে নেওয়া হয়।

কোহলির সমর্থক দারাজের দাবি, ‘আমি কোহলির ভক্ত। আমি ভারতীয় দলকে সমর্থন করি শুধুমাত্র কোহলির জন্য। আর আমার ছাদের ওপর ভারতীয় পতাকা উড়িয়েছি শুধুমাত্র সেখানের ক্রিকেটারদের প্রতি ভালোবাসা থেকে।

ভারতীয় পতাকা উড়ালে যে অপরাধ হবে এটি জানতাম না। আমি শুধুই একজন ভারতীয় সমর্থক, কোনো গোয়েন্দা নই।’

পাকিস্তানি পুলিশ দারাজের ঘর থেকে ভারতীয় পতাকা ছাড়াও তার দেওয়ালে বেশ কয়েকটি কোহলির পোস্টার জব্দ করে।