মেইন ম্যেনু

ক্যান্সারে শিশুদের তুলনায় তরুণদের মৃত্যুহার বেশি

ছোট শিশুদের তুলনায় অপ্রাপ্তবয়স্ক ও প্রাপ্তবয়স্ক তরুণ-তরুণীদের মধ্যে ক্যান্সারের কারণে মৃত্যুর হার বেশি। ইউরোপজুড়ে চালানো এক গবেষণায় দেখা গেছে, কিছু সুনির্দিষ্ট কারণে বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার-আক্রান্ত হয়ে তরুণ-তরুণীরা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছে।

চিকিৎসা বিষয়ক সাপ্তাহিক জার্নাল ‘দি ল্যানসেট অনকলোজি’ এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সাধারণত লিওকোমিয়া ক্যান্সারে আক্রান্ত ছোট শিশুদের তুলনায় প্রাপ্ত ও অপ্রাপ্তবয়স্ক তরুণ-তরুণীদের বেঁচে থাকার হার কম। রোগীর দেহে থাকা টিউমারে পার্থক্য থাকা, বিলম্বে রোগ শনাক্তকরণ, চিকিৎসা গ্রহণ ও যথাযথ পরীক্ষা-নিরীক্ষার অভাবই মূলত এর জন্য দায়ী বলে জানান বিশেষজ্ঞরা।

ক্যান্সারের চিকিৎসা ‍বিষয়ে কী সমস্যা আছে তা আগে থেকে শনাক্ত করাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল বলেও মত দেন গবেষকরা। ইতালির জাতীয় ক্যান্সার ইনস্টিটিউটের চিকিৎসক এনালিসা ট্রমা বলেন, ‘তবু ভালো সংবাদ হলো, যথাযথ উপায়ে সঠিক রোগ নির্ণয়ের কারণে ইউরোপে ক্যান্সারে আক্রান্ত শিশু, অপ্রাপ্ত ও প্রাপ্তবয়স্ক তরুণ-তরুণীদের বেঁচে যাওয়ার হার এখন আগের চেয়ে বেড়েছে।

গবেষণা প্রতিবেদনটি ইউরোপের ২৭ টি দেশের ক্যান্সার আক্রান্ত ৫৭ হাজার শিশু ও ৩ লাখ ১২ হাজার তরুণ-তরুণীর ওপর চালানো অনুসন্ধানের ওপর ভিত্তি করে তৈরি। এতে বলা হয়, পাঁচ বছর ধরে ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই করা তরুণ-তরুণীর বেঁচে থাকার সম্ভাবনা ৮২ ভাগ এবং ছোট শিশুদের বেঁচে থাকার সম্ভাবনা ৭৯ ভাগ।