মেইন ম্যেনু

ক্যান্সার থেকে আলসার সব রোগের মহৌষধ বেগুনি সবজি-ফল

চিকিৎসকরা সবসময়ই প্রাকৃতিক ভাবে রঙিন খাবার খেতে বলেন। তারা বলেন, সে সব খাবারে যে রঞ্জক পদার্থ থাকে, তা আমাদের শরীরের পক্ষে ভালো।

তবে তার মধ্যে বেগুনি রঙের খাবারে থাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং ফ্ল্যাভেনয়েডস। যা আমাদের স্বাস্থ্য রক্ষায় বিশেষ সাহায্য করে।

– বেগুনি খাবারে থাকে রেসভারেট্রোল, যা আমাদের দেহে ক্যানসার কোষ নষ্ট করতে সাহায্য করে। – কোরিয়া ইউনিভার্সিটির কলেজ অব লাইফ সায়েন্স অ্যান্ড বায়োটেকনোলজির একটি পরীক্ষায় দেখা গেছে, ব্ল্যাকবেরিতে এক ধরনের অ্যান্থোসায়ানিন থাকে যা আলসার ঠেকাতে সাহায্য করে।

– লিভার ভাল রাখতেও সাহায্য করে বেগুনি রঙের খাবার। বিশেষত যাঁরা খুব বেশি অ্যালকোহল পান করেন তাঁদের অবশ্যই এই ধরনের খাবার খাওয়া উচিত। বেগুনি খাবারের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট লিভারের কোষগুলোকে নষ্ট হওয়ার হাত থেকে বাঁচায়।

– জাম, বিট, বেগুনি আঙুর, ব্ল্যাকবেরির মতো জিনিস দেহে ক্ষতিকর কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে এবং হাই ডেনসিটি লাইপোপ্রটিন অর্থাৎ ভাল কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ায়। ফলে সুস্থ থাকে হৃত্পিণ্ড।

– বেগুনি বাঁধাকপি, বেগুনি গাজর, বেগুনি পেঁয়াজ, বেগুনি ফুলকপির মতো সব্জিতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্থোসায়ানিন থাকে, যা ইউরিনারি ট্র্যাক ইনফেকশন আটকাতে সাহায্য করে।

– অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ফ্রি-র‌্যাডিক্যাল কমাতে সাহায্য করে। ফলে তা আমাদের দেহ থেকে বিষাক্ত পদার্থ বাইরে বের করে দেয়। এতে ত্বক সুস্থ, সতেজ ও প্রাণবন্ত দেখায়। ত্বকে বলিরেখাও পড়ে না।

– এই ধরনের খাবার খেলে দেহে রক্ত সঞ্চালনের হারও বাড়ে। ফলে ইনসমনিয়া, মাইগ্রেইন, অবসাদের মতো সমস্যা কমার সম্ভাবনা থাকে।

– অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকায় এই ধরনের খাবারে স্মৃতিশক্তিও বাড়ে। পেশীর ক্ষয় রোধ করে। ওজন কমাতেও সাহায্য করে বেগুনি রঙের